এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এফআইআর দায়ের হতেই নাম করে মমতাকে বড়সড় হুঁশিয়ারি অনুপমের! জোর চাঞ্চল্য বিজেপি নেতার কাণ্ডে !

এফআইআর দায়ের হতেই নাম করে মমতাকে বড়সড় হুঁশিয়ারি অনুপমের! জোর চাঞ্চল্য বিজেপি নেতার কাণ্ডে !



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্য রাজনীতিতে অশ্লীল মন্তব্যের রেওয়াজ থামছে না কিছুতেই। তৃণমূলে থাকার সময় তার নানা টুইট বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে পৌঁছে দিয়েছিল তাকে। তবে বিজেপির মত সাংগঠনিক এবং শৃঙ্খলাপরায়ন দলে এসে সেভাবে কোনো বিতর্কিত মন্তব্য করতে দেখা যায়নি অনুপম হাজরাকে। কিন্তু সম্প্রতি সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে গুরু দায়িত্ব পাওয়ার পর সেই অনুপম হাজরার গলায় মমতা বন্দোপাধ্যায়কে নিয়ে একটি বিতর্কিত মন্তব্য প্রকাশ্যে চলে আসে। যে ঘটনার পর রীতিমত শোরগোল পড়ে যায় রাজ্য রাজনীতিতে।

যেখানে অনুপমবাবুকে বলতে শোনা যায়, করোনা হলে প্রথমেই তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জরিয়ে ধরবেন। আর তার এই কথার পরই সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করে রাজ্য রাজনীতিতে। বিরোধী দলের নেত্রীর প্রতি কেন সামান্য সৌজন্যটুকুও প্রদর্শন করতে পারলেন না বিজেপি নেতা! তা নিয়ে নানা মহলে তৈরি হয় প্রশ্ন। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছে যায় যে, অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের তৃণমূলের উদ্বাস্তু সেলের পক্ষ থেকে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়। পাশাপাশি দ্রুত যাতে অনুপম হাজরাকে গ্রেফতার করা হয়, তার জন্য দাবি তোলেন সংগঠনের সদস্যরা।

আর এই ঘটনার পরেই ব্যাপকভাবে চাপে পড়ে অনুপম হাজরা এবং তার দল ভারতীয় জনতা পার্টি। স্বভাবতই পদ পাওয়ার সাথে সাথেই যেভাবে অনুপম হাজরার মত বিজেপি নেতা বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে পৌঁছে গেলেন, তাতে তার পক্ষ থেকে এখন কি বিবৃতি দেওয়া হয়, সেদিকে নজর ছিল সকলেরই। অবশেষে এই ব্যাপারে মুখ খুলতে দেখা গেল সেই অনুপম হাজরাকে। কিন্তু বিরোধী দলের নেত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিতর্কিত মন্তব্য করে অনুপম হাজরা নিজের সুর নরম করবেন বলে আশা করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু তা তো তাকে করতেই দেখা গেলই না। উল্টে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিলেন সেই অনুপম হাজরা। যা রাজ্য রাজনীতিতে আরও অস্বস্তিকর পরিবেশ সৃষ্টি করল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু কি এমন বললেন এই বিজেপি নেতা? যার জেরে আরও বিতর্কে সৃষ্টি হল? বস্তুত, অনুপম হাজরার পূর্বের বিতর্কিত মন্তব্যকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের উদ্বাস্তু সেলের পক্ষ থেকে এদিন শিলিগুড়ি কমিশনের একটি এফআইআর দায়ের করা হয়। আর তারপরেই এই ব্যাপারে মুখ খোলেন বিজেপির সর্বভারতীয় কেন্দ্রীয় সম্পাদক। তিনি বলেন, “যদি আমার বিরুদ্ধে একটা এফআইআর করা হয়, তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতগুলো লাশ কেরোসিন দিয়ে পুড়িয়েছে, ততগুলো এফআইআর তার বিরুদ্ধে হবে।”

অর্থাৎ অনুপমবাবুর আগের মন্তব্যে বিতর্ক তৈরি হলেও, তার বিরুদ্ধে যখন মামলা শুরু হয়েছে, তখন তিনি এই ব্যাপারে সুর নরম করবেন বলে আশা করা হয়েছিল। কিন্তু তা না করে যেভাবে পাল্টা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সম্পাদক, তাতে তৃণমূল এবং বিজেপির রাজনৈতিক তরজা বহুগুণে বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা এখন অনুপম হাজরার এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের পক্ষ থেকে কি প্রতিক্রিয়া আসে, কোনদিকে গড়ায় গোটা পরিস্থিতি, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!