এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফের রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত! এবার করোনা তথ্য নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ রাজ্যপালের!

ফের রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত! এবার করোনা তথ্য নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ রাজ্যপালের!



রাজ্যের রাজ্যপাল হিসেবে জাগদীপ ধনকার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজ্যের শাসক দলের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে মতানৈক্য লক্ষ্য করা গেছে তার। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক চর্চা হয়েছে। তবে করোনা ভয়াবহতার মাঝে অন্তত যেখানে বিরোধী এবং শাসকের মধ্যে তেমন তরজা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না, তখন রাজ্য বনাম রাজভবনের মধ্যে কোনো তরজা হবে না বলেই আশা করেছিল বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু সেই সমস্ত আশাকে কার্যত ম্লান করে দিয়ে যেমন বিরোধী বনাম সরকারের তরজা লক্ষ্য করা যাচ্ছে, ঠিক তেমনই লক্ষ্য করা যাচ্ছে রাজ্য বনাম রাজভবনের তরজা।

সাম্প্রতিককালে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে রেশনিং ব্যবস্থা থেকে শুরু করে টেস্ট কিট, বিভিন্ন বিষয়ে উষ্মা প্রকাশ করতে দেখা গেছে রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধানকে। এমনকি রাজ্যপালের তরফে চিঠি দিয়েও এই ব্যাপারে সরকারকে অবহিত করা হয়েছে। পাল্টা রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান তথা মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যপালকে চিঠি দিয়েছেন। যার ফলে রাজ্য বনাম রাজ্যপালের সম্পর্কে আরও তিক্ততা লক্ষ্য করেছে গোটা বাংলার মানুষ।

পরবর্তীতে রাজ্যপাল ফের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে তার মুসলিম তোষণের ব্যাপারে উষ্মা প্রকাশ করেছেন। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে যখন রাজ্য বনাম রাজ্যপালের দ্বন্দ্ব চরমে উঠেছিল, তখন সকলেই আশা রেখেছিলেন, হয়ত এবার দ্বন্দ্ব কমবে। কিছুদিনের জন্য সেই দ্বন্দ্ব কমেও গিয়েছিল। তবে আবার ফের সেই দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে চলে এল। সূত্রের খবর, এবার রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তথ্য লুকানোর অভিযোগ করলেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার। জানা গেছে, এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে একটি টুইট করেন রাজ্যপাল। যেখানে তিনি লেখেন, “করোনার তথ্য লুকানো বন্ধ করে সবার সামনে তা প্রকাশ করুন।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

শুধু তাই নয়, সম্প্রতি রাজ্যের তরফে কেন্দ্রের কাছে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে একটি বুলেটিন পাঠানো হয়েছিল। যেখানে মোট করোনা আক্রান্তের তথ্য দেওয়া হয়েছিল। আর সেই তথ্য তুলে ধরেও রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানকে আক্রমণ করেন রাজ্যে সাংবিধানিক প্রধান। কিন্তু কি ছিল সেগুলি তথ্যতে? যা তুলে ধরে রাজ্যকে আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল? বস্তুত, গত 30 এপ্রিল রাজ্যে করোনা পজিটিভ সংখ্যা ছিল 572 জন। কিন্তু কেন্দ্রকে দেওয়া চিঠিতে মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা জানিয়েছেন যে, রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত 931 জন। তবে রাজ্য এই ব্যাপারে কোনো বুলেটিন প্রকাশ না করলেও, কেন্দ্রের কাছে ভিন্ন তথ্য দেওয়ায় এদিন তা তুলে ধরে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হলেন রাজ্যপাল।

অর্থাৎ এই কথা বলে বোঝানোর চেষ্টা করলেন যে, কেন্দ্রকে রাজ্য এক তথ্য দিলেও, সাধারণ মানুষের সামনে রাজ্যের ব্যর্থতা দেখাচ্ছে না বলে মত বিশেষজ্ঞদের। আর বর্তমান করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে এই মন্তব্য এখন রীতিমতো আলোড়ন সৃষ্টি করেছে রাজ্য রাজনীতিতে। এদিন এই প্রসঙ্গে এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাজ্যপাল বলেন, “আমি মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করছি বিশ্বজুড়ে এই মহামারীর সময়ে রাজনীতিকে দূরে সরিয়ে রাখুন। দেশের কোনো রাজ্যে কেন্দ্রের আন্তঃমন্ত্রক দলকে বাধার মুখে পড়তে হয়নি।

শুধু বাংলার সরকারই কেন্দ্রীয় দলকে বাধা দিয়েছে।” তবে রাজ্যপাল এই ব্যাপারে রাজ্য সরকারকে তুলোধোনা করলেও, এখনও পর্যন্ত শাসকদলের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে শাসক দল যদি এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে আবার কোনো মন্তব্য করে, তাহলে পরিস্থিতি ক্রমশ ঘোরালো হয়ে উঠবে বলেই আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। এখন গোটা ব্যাপারটি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!