এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > ফের মন্তব্য করে তৃণমূলে থাকা নিয়ে জল্পনা বাড়ালেন শুভেন্দু,

ফের মন্তব্য করে তৃণমূলে থাকা নিয়ে জল্পনা বাড়ালেন শুভেন্দু,



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে শাসকদল তৃণমূলের কিছুতেই স্বস্তি মিলছে না। যেকোনো সময় তিনি দল ছাড়তে পারেন বলেও আশঙ্কা রয়েছে। শাসকদলের পক্ষ থেকে তাঁকে বোঝাতে গতকাল সোমবার দেড় ঘণ্টার বৈঠক হয়েছিল শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ের। তবে এই বৈঠকে তাদের মধ্যে কি আলোচনা হয়েছিল? সে ব্যাপারে কিছুই জানাননি শুভেন্দু অধিকারী ও সৌগত রায়। তবে, আজ তৃণমূল ভবনে এক সাংবাদিক বৈঠকে এ বিষয়টি জানাতে পারেন সৌগত রায়। তাই এই সাংবাদিক বৈঠক নিয়ে কৌতুহল বাড়ছে সকলের।

গতকাল সোমবার শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দেড় ঘন্টার রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়েছিল দমদমের তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ের। দীর্ঘ বৈঠক হলেও বৈঠক থেকে কোন রফা সূত্র বেরিয়ে আসেনি বলেই সূত্রের দাবি। বৈঠকে শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছেন, পূর্বে তিনি যেমন একাধিক জেলার পর্যবেক্ষক ছিলেন। সেই ক্ষমতা তিনি ফিরে পেতে চান। সৌগত রায় তাঁকে জানিয়েছেন যে, সম্প্রতি সাংগঠনিক রদবদলের পর তৃণমূলে এই পদ অবলুপ্ত হয়েছে। কিন্তু, নিজের অবস্থান থেকে শুভেন্দু অধিকারী একবিন্দুও সরেননি।

এ কারণেই, গতকালের বৈঠক তেমন ফলদায়ক হয়নি। উল্টে শুভেন্দু অধিকারী সাংগঠনিক রদবদলের দাবি করেছেন। ভাইফোঁটার দিনে শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে প্রথম বৈঠক হয়েছিল সৌগত রায়ের। তখনও তিনি একই দাবি করেছিলেন বলে সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে। এদিকে গতকাল দুপুরে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর সহ তৃণমূলের কিছু শীর্ষস্থানীয়দের সঙ্গে বৈঠক হয়েছিল সৌগত রায়ের। এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সুব্রত বক্সী, পূর্ণেন্দু বসু, দোলা সেন প্রমুখরা। শুভেন্দু অধিকারীর দাবি-দাওয়া নিয়ে আলোচনা হয়েছিল বৈঠকে। এ বৈঠকের পরই শুভেন্দু অধিকারী সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন সৌগত রায়।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে, এই বৈঠকে তাঁদের মধ্যে কি আলোচনা হয়েছিল সে বিষয়গুলো গোপন রাখা হয়েছে। বৈঠকের পর সৌগত রায় জানিয়েছিলেন যে, কোন বিষয় নিয়ে একটা আলোচনা চললে, তা সকলের সামনে সব বলা যায় না। আজ মঙ্গলবার তৃণমূল ভবনে বৈঠকে তিনি এ বিষয়ে জানাবেন। তাই, আজকের বৈঠকে তিনি বিষয়টি খোলাসা করতে পারেন।এদিকে শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দলের দূরত্বটা অনেকটাই বেড়েছে। বিভিন্ন রকম সভায় যোগ দিয়ে নিজের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে বেশ কিছু মন্তব্য করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে আগামী দিনে তিনি কি করতে চলেছেন? তা তিনি স্পষ্ট করে জানাননি।

কিছুদিন আগে পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরের একটি সভা থেকে শুভেন্দু অধিকারী কিছুটা সুর নরম করেছিলেন দলের প্রতি। যেখানে তিনি বলেছিলেন, ” আমি এখনও দলের প্রাথমিক সদস্য। রাজ্য মন্ত্রিসভারও সদস্য। দলের নিয়ন্ত্রকরা আমাকে তাড়াননি। আমিও দল ছাড়িনি। মুখ্যমন্ত্রী আমায় মন্ত্রিসভা থেকে তাড়ািয়ে দেননি। আমিও ছাড়িনি। যে ক’টি পদে আছি, সবকটিতেই আমি নির্বাচিত। মন্ত্রিসভায় থেকে দলের বিরুদ্ধে আমি কথা বলব না।”

তবে, পরে তিনি আরো জানান, ” দল করতে বিভিন্ন কারণে গেলে বিভেদ আসে। বিভেদ থেকে বিচ্ছেদও আসে। কিন্তু যতক্ষণ মন্ত্রিসভায় আছি বা দলে আছি, ততক্ষণ কোনও রাজনৈতিক কথা বলা যায় না। আমি সেটা বলতে পারি না।” এভাবে একাধিক মন্তব্য করে তৃণমূলে তাঁর থাকা নিয়ে জল্পনা বাড়িয়ে দিচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী। সম্প্রতি কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর প্রতি বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন। অন্যদিকে শুভেন্দু অধিকারীকে নরম বার্তা দিয়েছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুখেন্দুশেখর রায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার প্রমুখরা। তবে, আগামী দিনে তিনি কি করতে চলেছেন? তা নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন ও জল্পনা।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!