এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ফের কি দেশে জারি হবে লকডাউন, কি জানালেন দেশের অর্থমন্ত্রী?

ফের কি দেশে জারি হবে লকডাউন, কি জানালেন দেশের অর্থমন্ত্রী?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দেশে বাঁধভাঙ্গা গতিতে বাড়ছে করোনা। গত ২৪ ঘন্টায় দেশের দৈনিক করোনার সংক্রমণ প্রায় পৌনে তিন লক্ষের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। এই পরিস্থিতিতে দেশে কি জারি করা হবে লকডাউন? এই প্রশ্ন রয়েছে অনেকেরই। এবার, লকডাউন জারির ব্যাপারে বিশেষ সিদ্ধান্তের কথা জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানালেন, দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করার কোনো সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় সরকারের নেই। তবে ছোট ছোট কনটেইনমেন্ট জোন তৈরি করে লকডাউন জারি করার একটা সম্ভাবনা আছে।

গত কিছুদিন ধরেই দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষের গণ্ডি অতিক্রম করে যাচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় যে হারে দেশে করোনা সংক্রমণ ঘটেছে, তা এযাবতকালে ঘটেনি। এরসাথেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। তাই এই পরিস্থিতিতে অনেকেই আশঙ্কা করছেন, তবে কি আবার জারি হবে লকডাউন? কারণ গত বছরের লকডাউনের স্মৃতি এখনো রয়েছে মানুষের মনে। বহু মানুষ জীবিকা হারিয়ে পথে বসেছিলেন। ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল দেশের অর্থনীতি।

গতবছর লকডাউন কালে অর্থনীতিকে সতেজ করতে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছিল। গত বছর ২০.৯৭ লক্ষ কোটি টাকা আর্থিক অনুদান দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। আবার যদি লকডাউন ঘটে, তবে অর্থনীতি চাপের মুখে পড়তে পারে বলে, একাধিক বিশেষজ্ঞের ধারণা। এ প্রসঙ্গে নীতি আয়োগ এর ভাইস চেয়ারম্যান রাজীব কুমার জানালেন, আরো একবার যদি দেশে অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা তৈরি হয়, তবে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আর্থিক প্যাকেজ প্রদানের মাধ্যমে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করা হবে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে সম্প্রতি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছিলেন যে, করোনা আক্রান্ত রোগীদের আইসোলেশন, কোয়ারেন্টাইনের মাধ্যমে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যেতে পারে। করোনার পরীক্ষা বৃদ্ধি, টিকাকরণের মাধ্যমে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। তবে, সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে তিনি জানালেন, দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষিত হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। তার এই সিদ্ধান্ত স্বস্তি দিয়েছে বহু মানুষকে।

অন্যদিকে, ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান মাইক্রো অ্যান্ড স্মল অ্যান্ড মিডিয়াম এন্টারপ্রাইজসের সভাপতি অনিমেশ সাক্সেনা সম্প্রতি জানালেন, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন সব রকম পরিস্থিতির জন্য তাঁদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলতে পারে। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সমস্ত রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন। প্রতিটি রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির ওপর কেন্দ্রীয় সরকার নজর রাখছে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যগুলিকে সমস্ত ভাবে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রয়েছে কেন্দ্র। অক্সিজেন সরবরাহ, অসুধ, ভ্যাকসিন সহ সব রকম ভাবে সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে কেন্দ্র।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!