এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফেব্রুয়ারি মাসেও বর্ধিত বেতন পাবেন না অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা, জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে!

ফেব্রুয়ারি মাসেও বর্ধিত বেতন পাবেন না অবসরপ্রাপ্ত কর্মীরা, জোর চাঞ্চল্য রাজ্যে!



জানুয়ারি মাসে বর্ধিত বেতন পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন তারা। আর জানুয়ারীর মত ফেব্রুয়ারি মাসেও বর্ধিত পেনশন পাওয়া থেকে বঞ্চিত হতে চলেছেন রাজ্যের কয়েক লক্ষ অবসরপ্রাপ্ত স্কুল, কলেজের শিক্ষক, অশিক্ষক, পৌরসভা এবং পঞ্চায়েতের কর্মীরা। প্রসঙ্গত, গত 2020 সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে ষষ্ঠ বেতন কমিশন কার্যকর হলেও, ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতেই বর্ধিত পেনশন হাতে পাওয়ার কথা ছিল কর্মচারীদের। কিন্তু বেশ কিছু দপ্তরের গাফিলতির জন্য এই ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত প্রশাসনিক বিজ্ঞপ্তি জারি হয়নি।

যার কারণে এবার স্কুল-কলেজের শিক্ষক, অশিক্ষক, পৌরসভা এবং পঞ্চায়েতের কর্মীরা বর্ধিত পেনশন পাচ্ছেন না। তবে কবে এই বিরাট সংখ্যক পেনশনভোগীরা তাদের পাওনা টাকা হাতে পাবেন, এখন তা নিয়ে নানা মহলে তৈরি হয়েছে জল্পনা। পাশাপাশি এই ব্যাপারে সেই অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের মনে তৈরি হয়েছে ব্যাপক ক্ষোভ।

কেন এমনটা হচ্ছে! অনেকে বলছেন, যেখানে রাজ্য সরকার চলতি বাজেটে অবসরপ্রাপ্তদের কথা মাথায় রেখে গতবারের তুলনায় পেনশন খাতে প্রায় 2 হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত বরাদ্দ করেছে, সেখানে এই টালবাহানা কেন! অর্থ দফতরের কর্তাদের বক্তব্য, পেনশনভোগীদের প্রাপ্য টাকা দিতে রাজ্য সরকারের সদিচ্ছার অভাব নেই। কিন্তু কয়েকটি দপ্তরের উদাসীনতার জন্যই এই সমস্যা পোহাতে হচ্ছে। ইতিমধ্যেই এই অবসরপ্রাপ্তদের ক্ষোভের ব্যাপারটি রাজ্য সরকারের সদরদপ্তর নবান্নে পৌছতেই স্কুল এবং উচ্চ শিক্ষা দপ্তর তাদের ফাইল অর্থ দপ্তরে পাঠিয়ে দিয়েছে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

ফলস্বরূপ গত 10 ফেব্রুয়ারি অর্থমন্ত্রী এবং অর্থসচিব তাতে স্বাক্ষর করে দেওয়ার পরও, স্কুল শিক্ষা দপ্তর এখনও পর্যন্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করতে পারেনি। একইভাবে এখনও পর্যন্ত নবান্নে ফাইল পাঠায়নি রাজ্যের পুর এবং পঞ্চায়েত দপ্তর বলেও অভিযোগ। আর সরকারি দপ্তরগুলোর এহেন গা ঢিলেমিতেই যে অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীরা ফেব্রুয়ারিতেও তাদের বর্ধিত পেনশন পাবেন না, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত একাংশ। কিন্তু ঠিক কতদিন সময় লাগতে পারে অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের মুখে হাসি ফোটাতে! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উচ্চ শিক্ষা দপ্তর ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে বিজ্ঞপ্তি জারি করে দিয়েছে।

কিন্তু এই বিজ্ঞপ্তি জারির পর দশ থেকে পনেরো দিন পেনশনভোগীদের অপশন ফর্ম পূরণের জন্য সময় দিতে হবে। আর এই 10 থেকে 15 দিন যদি সময় দেওয়া হয়, তাহলে ফেব্রুয়ারি মাস পার হয়ে যাবে। ফলে অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে কাজ করলেও, আরও একমাস এই ব্যাপারে সময় লাগবে বলে মনে করছে একাংশ। ফলে সেদিক থেকে ফেব্রুয়ারি মাসে যে অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীরা তাদের বর্ধিত পেনশন পাবেন না, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত প্রায় প্রত্যেকেই। এখন এই অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের কিছুটা স্বস্তি দিতে কত দ্রুত পদক্ষেপ নেয় রাজ্য, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!