এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > ফেসবুক লাইভে বিস্ফোরক মদনকে বড় দায়িত্ব মমতার, বাড়ছে জল্পনা!

ফেসবুক লাইভে বিস্ফোরক মদনকে বড় দায়িত্ব মমতার, বাড়ছে জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম দিনের সৈনিক তিনি। কিন্তু দল ক্ষমতায় আসার পর প্রথম তৃণমূল সরকারের আমলে মন্ত্রিত্ব পেলেও, বেশিদিন দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। পরবর্তীতে সারদাকাণ্ডের জন্য শ্রীঘরে যেতে হয়েছিল মদন মিত্রকে। আর শ্রীঘর থেকে বেরিয়ে তার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ রীতিমত প্রশ্নের মুখে পড়ে যায়। দিনকে দিন দলীয় এবং প্রশাসনিক স্তরে গুরুত্ব হারাতে শুরু করেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট নেতা। পরবর্তীতে সামাজিক নানা অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে রাজনৈতিক অনুষ্ঠান, সমস্ত কিছু ফেসবুক লাইভের মধ্যে দিয়ে মানুষের কাছে তুলে ধরেন মদন মিত্র।

তবে 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে তাকে কামারহাটি বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জয়লাভ করেন মদনবাবু। কিন্তু মন্ত্রীত্বের আশা করা হলেও, তাকে রাজ্য মন্ত্রিসভায় নিযুক্ত করেননি তৃণমূল নেত্রী। তবে কিছুদিন আগেই ফেসবুক লাইভে বিধায়ক বা মন্ত্রী না থাকলেও হবে, কিন্তু তাকে যেন কামারহাটি পৌরসভার প্রশাসক করা হয়, এই ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন করেন মদন মিত্র। যার পরেই এই ধরনের ফেসবুক লাইভ নিয়ে তৃণমূলের সাংগঠনিক বৈঠকে মদন মিত্রকে সতর্ক করে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে খবর পাওয়া যায়।

যদিও বা বাইরে বেরিয়ে সেরকম কিছুই হয়নি বলে দাবি করেন মদন মিত্র। তারপরেও নিজের ফেসবুক লাইভের মধ্যে দিয়ে মানুষের কাছে নানা বার্তা পৌঁছে দিতে দেখা যায় কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক। আর এবার মদন মিত্রকে বড় দায়িত্ব দিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। যাকে কেন্দ্র করে মদনবাবুর অনুগামীরা রীতিমত উচ্ছ্বসিত।

সূত্রের খবর, কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্রকে এবার উত্তর 24 পরগনা জেলায় তৃণমূলের সভাপতি করা হতে পারে। ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে তৃণমূলের অন্দরে আলোচনা শুরু হয়েছে। আর যদি তা বাস্তব হয়, তাহলে তৃণমূলের সংগঠনে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পৌঁছে যেতে চলেছেন মদন মিত্র। তবে মদন মিত্র যদি উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি হন তাহলে ডানা ছাটা হতে চলেছে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসে সিদ্ধান্ত হয়েছে, এক ব্যক্তি এক পদ নীতি। সেদিক থেকে যারা মন্ত্রী আছেন, তারা দলের সভাপতি থাকতে পারবেন না। আর সেই সিদ্ধান্তকে বাস্তবায়িত করতেই মদন মিত্রকে উত্তর 24 পরগনা জেলার সভাপতি করে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের শুধুমাত্র মন্ত্রী রাখা হতে পারে।

পর্যবেক্ষকদের মতে, সারদাকাণ্ডে জেল খাটার পরেও তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করেননি মদন মিত্র। এক্ষেত্রে তৃণমূলের অনেক হেভিওয়েট রাজনীতিবিদ দুর্নীতিতে নাম জড়ানোর পরই বাঁচবার জন্য বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন বলে নানা মহলের তরফ থেকে অভিযোগ আসে। কিন্তু সেক্ষেত্রে গ্রেপ্তার হওয়ার পরেও নিজের নীতি, আদর্শ ত্যাগ না করে সক্রিয় থাকতে দেখা গেছে মদন মিত্রকে। যার ফলস্বরুপ 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে কামারহাটি বিধানসভা কেন্দ্রে তাকে প্রার্থী করা হয়েছিল।

এমনকি জয়লাভ করে বিধায়ক হয়েছেন মদন মিত্র। কিন্তু তার পরবর্তীকালে ফেসবুক লাইভ নিয়ে মাঝেমধ্যেই বিতর্কিত মন্তব্য সামনে এসেছে। আর এই পরিস্থিতিতে এবার বড় সুখবর পেতে চলেছেন রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী। বিধায়ক হওয়ার পর এবার দলের সংগঠনে উত্তর 24 পরগনার মত বিরাট জেলার সর্বেসর্বা হতে চলেছেন মদন মিত্র বলে গুঞ্জন তৈরি হয়েছে শাসকদলের অন্দরমহলে। সব মিলিয়ে এই গুঞ্জন বাস্তব হয় কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!