এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > মমতা ব্যানার্জির নতুন নাম দিলেন তাঁর প্রাক্তন সৈনিক, শোরগোল রাজ্যজুড়ে! জেনে নিন বিস্তারে!

মমতা ব্যানার্জির নতুন নাম দিলেন তাঁর প্রাক্তন সৈনিক, শোরগোল রাজ্যজুড়ে! জেনে নিন বিস্তারে!



যত দিন যাচ্ছে, ততই রাজনীতিতে শালীনতার মাত্রা অতিক্রম করতে দেখা যাচ্ছে রাজনীতিবিদদের। রাজ্য রাজনীতিতে এনআরসি থেকে দুর্নীতি, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির তরজা চলছে। কিন্তু সেই তরজার মাঝেমধ্যেই এসে পড়ছে অশালীন আক্রমণ। যা নিঃসন্দেহে বঙ্গ রাজনীতিকে কলুষিত করছে বলেই দাবি একাংশের।

আর এবার নিজের প্রাক্তন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করতে গিয়ে তাকে পোষ্যর সঙ্গে তুলনা করলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। এদিন এই বিজেপি নেতা বলেন, “রাজ্য সরকার বিরোধীদের কোনো কাজ করতে দিচ্ছে না।” আর এরপরই নিজের প্রাক্তন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একটি পোষ্যের সঙ্গে তুলনা করে বাড়ির বাইরে “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হইতে সাবধান” লেখা বোর্ড লাগানোর পরামর্শ দেন সৌমিত্রবাবু।

আর এই ঘটনা নিঃসন্দেহে চরম বিতর্ক সৃষ্টি করেছে। অনেকে বলছেন, রাজনীতিতে বিরোধী দল সম্পর্কে আক্রমণ থাকবে। কিন্তু সেই আক্রমণ করতে গিয়ে কেন অশালীন হচ্ছেন বিজেপি নেতারা! এখন তা নিয়েই উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। এদিন সিঙ্গুর নিয়েও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নেন বিষ্ণুপুরের এই বিজেপি সাংসদ।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তিনি বলেন, “উনি কোনো ভাল কাজ করতে আসেননি। সিঙ্গুড়ে ছোট গাড়ি প্রকল্প বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর, এই রাজ্যে কটা শিল্প স্থাপন হয়েছে, কেউ বলতে পারবেন! জেলার কংসাবতী সেচ প্রকল্পে যারা চাকরির সুযোগ পেয়েছে, প্রত্যেকেই বেহালা থেকে। পূর্ব মেদিনীপুরের, বিষ্ণুপুরের কোনো বেকার যুবক এই কাজ পাননি। এই প্রকল্পে কাজ পেতে টেবিলের তলা দিয়ে টাকার লেনদেন হয়েছে।”

আর এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে হরিদাস ব্যানার্জি বলে কটাক্ষ করে সৌমিত্র খাঁ বলেন, “এই দল শুধুমাত্র ওনার। তাই গত জানুয়ারি মাসে ওয়াক থু করে আমি বেরিয়ে এসেছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাংঘাতিক ভাইরাস এবং খতরনাক।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাজনীতিতে যেভাবে বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বিরোধীদলের নেত্রীকে কটাক্ষ করে অশালীন আক্রমণ করলেন, তা নিয়ে নিঃসন্দেহে বিতর্ক তৈরি হবে। কিন্তু কেন রাজনৈতিক আক্রমণ বাদ দিয়ে অশালীন আক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে? এখন তা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে সব মহলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!