এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরও প্রায় চার মাস হতে চললেও এখনো গড়া যায়নি বেশ কিছু পঞ্চায়েত ও সমিতির বোর্ড – ক্রমশ কড়া হচ্ছে প্রশাসন

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরও প্রায় চার মাস হতে চললেও এখনো গড়া যায়নি বেশ কিছু পঞ্চায়েত ও সমিতির বোর্ড – ক্রমশ কড়া হচ্ছে প্রশাসন



এই রাজ্যে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন নিয়ে যেন কিছুতেই টালবাহানা কমছে না। গত সেপ্টেম্বর মাসে দেশের শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে এই রাজ্যের সব পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন করা যাবে বলে নির্দেশ দেওয়া হলেও এখনও পর্যন্ত রাজ্যের বেশ কিছু পঞ্চায়েত বা পঞ্চায়েত সমিতিতে সেই বোর্ড গঠনের কাজ সম্পন্ন হয়নি।

ফলে প্রবলভাবে বাধা পাচ্ছে উন্নয়ন। আর তাই এবারে যে সমস্ত জায়গায় এই বোর্ড গঠন করা সম্ভব হয়নি সেখানে আগামী 16 ই ডিসেম্বরের মধ্যে তা সম্পূর্ণ করবার জন্য জেলাশাসকদের একটি নির্দেশ দিয়েছে পঞ্চায়েত দপ্তর। কিন্তু কোন কোন জেলায় এই বোর্ড গঠন সম্ভব হয়নি?

সূত্রের খবর, রাজ্যের কুড়িটি জেলায় 3207 টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে 3140 টিতে বোর্ড গঠন করা হয়েছে। ফলে এখনও 67 টি গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন বাকি রয়েছে। আর এই অসমাপ্ত বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া সবথেকে বেশি চোখে পড়ছে পুরুলিয়া জেলায়।

বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, 170 টি গ্রাম পঞ্চায়েত বিশিষ্ট এই পুরুলিয়া জেলায় এবারে বোর্ড গঠন হয়েছে মোট 126 টিতে। ফলে এখনও সেখানে 44 টি গ্রাম পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া বাকি রয়েছে। তবে শুধু পুরুলিয়াই নয়, বাঁকুড়ার নটি, ঝাড়গ্রামের সাতটি, নদীয়ায় তিনটি, দক্ষিণ 24 পরগনা, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি এবং বীরভূমের একটি করে গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন এখনও সম্পন্ন হয়নি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে পঞ্চায়েত সমিতিরও ঠিক একই অবস্থা। 330টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যে এখনও পর্যন্ত এই বোর্ড গঠন সম্ভব হয়েছে 321 টিতে।যেখানে ঝাড়গ্রামে তিনটি, পুরুলিয়ায় চারটি এবং উত্তর 24 পরগনায় একটি পঞ্চায়েত সমিতির বোর্ড গঠন বাকি রয়েছে।

কিন্তু এই ভাবে এখনও পর্যন্ত বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন না হলে উন্নয়ন বাধা পাবে বলে মত আশঙ্কা প্রকাশ করছেন পঞ্চায়েত দফতরের আধিকারিকরা। আর তাইতো আগামী 16 ই ডিসেম্বরের মধ্যে এই অসমাপ্ত পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতির বোর্ড গঠন করার নির্দেশ দিল রাজ্য পঞ্চায়েত দপ্তর।

পাশাপাশি আগামী 15 ফেব্রুয়ারীর মধ্যে রাজ্যের 3207 টি গ্রাম পঞ্চায়েতেও একটি উন্নয়নের পরিকল্পনা তৈরি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের অসমাপ্ত পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতির বোর্ড গঠন প্রক্রিয়াকে সম্পন্ন করে উন্নয়নের কাজকে আরও বেশি করে ত্বরান্বিত করতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!