এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > ইংল্যান্ড – শ্রীলঙ্কা প্রথম টেস্টে রুটের ডবল সেঞ্চুরি! গভীর সংকটে শ্রীলঙ্কা।

ইংল্যান্ড – শ্রীলঙ্কা প্রথম টেস্টে রুটের ডবল সেঞ্চুরি! গভীর সংকটে শ্রীলঙ্কা।



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –

১৪ই জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে ইংল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা টেস্ট সিরিজ। এই সিরিজের দুটি টেস্ট ম্যাচের মধ্যে প্রথম টেস্ট শ্রীলঙ্কার গেলে স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে ১৪ই জানুয়ারি থেকে। টেস্টের প্রথম দিনে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নামে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু তাদের ব্যাটিং দুর্গ তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে। শ্রীলঙ্কার কোনো ব্যাটসম্যানই প্রথম ইনিংসে তাদের প্রভাব ফেলতে পারেনি।

অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমালের ২৮ রান শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের সর্বোচ্চ রান। এরপরই রয়েছে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের ২৭ রান। স্ট্রুয়াট ব্রড, দম বেস এর দুর্দান্ত বোলিংয়ে মাত্র ১৩৫ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। মাত্র ১০ ওভারে ৫ উইকেট তুলে নেয় দম বেস, ৩০ রানের বিনিময়ে। অন্যদিকে স্ট্রুয়াট ব্রড এর দুর্দান্ত বোলিং প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের ৩টি উইকেট ছিনিয়ে নেয় মাত্র ৯ ওভারে ২০ রান দিয়ে।

এরপর ইংল্যান্ড তাদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে গড়ে তলে রানের বিশাল পাহাড়। অধিনায়ক জো রুটের ২২৮ রানের ওপর ভিত্তি করে ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ৪২১ রান করে। এই ইনিংসে রুট তার চতুর্থ ডবল সেঞ্চুরি করে। ৯৮ তম টেস্ট খেলা রুট এই ডবল সেঞ্চুরির সাথেই টেস্ট ক্রিকেটে রুট ৮০০০ রানের গণ্ডি পেরোয় এই ইনিংসে। ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যানদের মধ্যে, জো রুট সপ্তম ব্যাটসম্যান যে কিনা টেস্টে ৮০০০ রানের গণ্ডি পেরিয়েছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যানদের মধ্যে রুটের পরেই উল্লেখযোগ্য ডান লরেন্স, লরেন্স প্রথম ইনিংসে ৭৩ রান করেছে। ইংল্যান্ডের অন্যান্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে, জনি বেয়ারস্টো ৪৭ রান করে এবং জোস বাটলার ৩০ রান করে। ইংল্যান্ড ওপেনাররা সুবিধে করতে পারেনি প্রথম ইনিংসে। শ্রীলংকান বোলারদের মধ্যে উল্লখযোগ্য লাসিথ এম্বুলদেনিয়ার ৩ টি এবং দিলরুয়ান পেরেরার ৪ টি উইকেট।

দ্বিতীয় ইনিংসে ২৮৬ রানের টার্গেট মাথায় নিয়ে ব্যাট করতে নামে শ্রীলঙ্কা। শ্রীলংকার ওপেনার কুশল পেরেরা এবং লাহিরু থিরিমানে দলকে ভালো শুরু দিলেও দলের বাকি ব্যাটসম্যানরা তা ধরে রাখতে পারেনি। কুশাল পেরেরা ৬২ রান করে আউট হয় এবং থিরিমানে তার শত রান পূরণ করে ১১১ রানে আউট হয়। দলের বাকি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একমাত্র অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুললেও তাকে সাহায্য করার মত কেউ ছিলনা।

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ৭১ রান করে আউট হয়। প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার পর, দম বেস দ্বিতীয় ইনিংসে তিনটি উইকেট পান। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে জ্যাক লীচ ৫টি এবং স্যাম কারণ দুটি উইকেট ছিনিয়ে নেয়। শ্রীলংকার দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় ৩৫৯ রান করে।

চতুর্থ দিনের শেষে মাত্র ৭৪ রানের টার্গেট নিয়ে ইংল্যান্ড তাদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে। দুই ওপেনার শুরুতেই আউট হয়ে যায় এবং প্রথম ইনিংসে ডবল সেঞ্চুরির পর রুট দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১ রান করে রান আউট হয়। ইংল্যান্ড দিনের দেশে তিন উইকেট হারিয়ে ৩৮ রান করে। কাল পঞ্চম দিনে মাত্র ৩৬ রান করলেই তাদের জিত নিশ্চিত। বলাই বাহুল্য, ইংল্যান্ডের পাল্লা ভারী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!