এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ইঞ্জিনিয়ার ছাত্রছাত্রীদের জন্য জড়তা কাটাতে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিলেন পার্থ

ইঞ্জিনিয়ার ছাত্রছাত্রীদের জন্য জড়তা কাটাতে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিলেন পার্থ



এদিন নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্যে উঠে এল ইঞ্জিনিয়ার ছাত্রছাত্রীদের ইংরাজির জড়তা কাটানোর ব্যাপারে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ। তিনি জানান যে ইংরাজি নিয়ে জড়তা সবথেকে বেশি লক্ষ্য করা যায় তাদের, যারা গ্রাম থেকে শহরে পড়তে আসে। এই সমস্যার সমাধান হতে পারে একটা উপায়ে। বিদেশের মতো এখানেও যদি মূল কোর্স শুরুর আগে ছয় সপ্তাহের ইংরাজি ক্লাস করানো যায় তবে এই সমস্যার একটা সুরাহা হতে পারে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

অন্যদিকে, বিভিন্ন প্রতিযোগীতামূলক পরীক্ষাগুলো বা বাংলাবোর্ডের পরীক্ষাগুলোতে শহর থেকে গ্রাম কেন এগিয়ে থাকে, এ প্রসঙ্গে পার্থ বাবু দিলেন নিজস্ব যুক্তি। তাঁর মতে, গ্রামের পড়ুয়ারা পড়াশুনোর পাশাপাশি খেলাধুলোরও সময় পায়। কিন্তু অভিভাবকদের অতিরিক্ত চাপে শহরের ছেলেমেয়েরা খেলাতেই বেশি সময় দিয়ে ফেলছে। পড়াশুনো আর করবে কখন? এছাড়া রয়েছে অভিভাবকদের সাড়াশী চাপ যা তাদের জীবন দুর্বিষহ করে তুলছে। তাই শহুরে গার্জেনদের কাছে মন্ত্রী অনুরোধ রেখেছেন যে, ছেলেমেয়েদের যেটা পড়তে ভালো লাগে সেটাই যেনো তারা পাঠ্য হিসাবে বেছে নেয়। জোর করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। সবাই তো আর সৌরভ গাঙ্গুলী হবে না তাই সবারই ব্যাট নিয়ে মাঠে নামার দরকার নেই। ইদানিং আরো একটা নতুন খেলা ট্রেন্ডিং এ এসেছে। ক্যারাটে। সবাই এটা শিখছে। আর অভিভাবকরা পড়ুয়াদের পিছু পিছু গিয়ে বসে থাকছেন। এসব করে নাকি আর পড়ার সময় থাকছে না। এদিন মন্ত্রী ভালো ফলের কারণ ব্যাখ্যায় আরো জানালেন যে এখন নাকি পড়ুয়ারা সোশ্যাল মিডিয়াকেও পড়াশুনোর কাজে লাগচ্ছে।

এসবেরই পাশাপাশি এদিন প্রসঙ্গসূত্রে তিনি তুলে ধরলেন বামজামানার খুঁতও। জানালেন, বামেদের আমলে নাকি ১৭-১৮ বছর ইংরাজি বন্ধ ছিল। তাই এখনকার কলেজপড়ুয়াদের ইংরাজি শিখনকে আরো শান দিতে হবে। এরজন্যে তিনিনি বলেছেন ৬ সপ্তাহের ক্লাস করানোর ব্যবস্থা নিতে। জানা যাচ্ছে যে, শিক্ষামন্ত্রীর কথামতো প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেই এই ধরনের ক্লাশ শুরু হয়ে গেছে। ভর্তি হওয়া ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের ৬ সপ্তাহের ইংরাজির কোর্সটি করানো হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!