এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > এলাকায় ফিরতে পারছেননা বিজেপি কর্মী, রাজনৈতিক হিংসার কারণে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে চাপানউতোর তুঙ্গে

এলাকায় ফিরতে পারছেননা বিজেপি কর্মী, রাজনৈতিক হিংসার কারণে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে চাপানউতোর তুঙ্গে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিধানসভা নির্বাচনের পরবর্তী কালে রাজনৈতিক হিংসা নিয়ে ক্রমাগত তৃণমূল প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আসছে গেরুয়া শিবির। একইসাথে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার অবনতি নিয়ে মুখ খুলেছেন প্রশাসনের বিরুদ্ধে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। পাশাপাশি রাজনৈতিক হিংসা বন্ধ করার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। রাজ্য বিজেপি নেতাদের সাথে সাথে কেন্দ্রীয় বিজেপির নেতারাও একইভাবে অভিযোগ জানিয়ে আসছেন। তৃণমূলের পক্ষ থেকে যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করা হচ্ছে। কিন্তু তা সত্বেও এমন কিছু ঘটনা সামনে আসছে, যেখানে বিজেপি’র অভিযোগই মান্যতা পাচ্ছে। যেমন- পূর্ব বর্ধমানে এবার সেরকমই একটি ঘটনা সামনে এসেছে।

জানা গিয়েছে শুধুমাত্র বিজেপি করার অপরাধে ঘরছাড়া হতে হয়েছে এক বিজেপি কর্মীর পরিবারকে। অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের দিকে। আর এই নিয়েই চাপানউতোর তুঙ্গে। যদিও বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল জানিয়েছে, বিধানসভা ভোটে এলাকায় সন্ত্রাস চালিয়েছে ওই পরিবারের এক বিজেপি কর্মী। এলাকায় এ ধরনের দুষ্কৃতীকে জায়গা দেওয়া হবেনা বলেও জানিয়েছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। আর তাই নিয়েই তীব্র চাঞ্চল্য রাজনৈতিক মহলে।

সূত্রের খবর, বর্ধমান শহরের আলমগঞ্জের বালি বাগানের বাসিন্দা নবীন সরকারের পরিবারের পক্ষ থেকে তৃণমূলের দিকে অভিযোগ তুলে বলা হয়েছে, নির্বাচনে তৃণমূল জেতার পর থেকেই নবীন সরকার বাড়িছাড়া। অভিযোগ, এই অবস্থায় বাড়ির অন্যান্যদের ঘর ছেড়ে চলে যাওয়ার নিদান দিয়েছে এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ব। অন্যদিকে নবীন সরকারের পরিবারের পক্ষ থেকে এই অভিযোগ সামনে আসায় তীব্র অস্বস্তিতে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁদের পক্ষ থেকে অবশ্য এই অভিযোগ মানা হয়নি।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এ প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃণমূল নেত্রী মিঠু সিংহ জানিয়েছেন, যেখানে এলাকার অন্যান্য বিজেপি কর্মীদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করছে তৃণমূল, সেখানে নবীন সরকারকে নিয়ে এ ধরনের সিদ্ধান্তের পেছনে কারণ আছে। তিনি জানান, নবীন সরকার ভোটের আগে এবং ভোটের দিন অস্ত্রসহ এলাকায় সন্ত্রাস চালিয়েছে। সেক্ষেত্রে এ ধরনের দুষ্কৃতীকে এলাকায় জায়গা দিতে নারাজ তৃণমূল। তবে পাশাপাশি এও জানানো হয়েছে, নবীন সরকারের পরিবারকে কখনোই বাড়ি ছাড়ার কথা বলা হয়নি। তাঁরা এখনো পর্যন্ত তাঁদের বাড়িতেই রয়েছেন।

অন্যদিকে তৃণমূলের এই দাবি ঘিরে এলাকার জেলা বিজেপির আহ্বায়ক কল্লোল নন্দন জানিয়েছেন, তৃণমূল জেতার পর থেকেই বিজেপির বহু নেতাকর্মী রাজনৈতিক হিংসার কারণে এখনও ঘর ছাড়া। এই অবস্থায় বারবার প্রশাসনকে, পুলিশকে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বললেও কোনো ফল হয়নি। প্রসঙ্গত, রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে রাজনৈতিক হিংসার দাবি করে আসছে বিজেপি। আর তাই নিয়েই ক্রমাগত তৃণমূল এবং বিজেপির তরজা বাড়ছে। এই অবস্থায় পূর্ব বর্ধমানের এই ঘটনা যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য বলে মনে করছেন রাজনীতির কারবারিরা। সেক্ষেত্রে এবার তৃণমূল নেতৃত্ব এবং প্রশাসন কি ব্যবস্থা গ্রহণ করে, সেদিকেই থাকছে নজর।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!