এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > একুশে বাজিমাতে প্রচারে খামতি রাখতে রাজি নন বিজেপি নেতারা! এবার বিয়েবাড়িতে গিয়ে অভিনব প্রচার

একুশে বাজিমাতে প্রচারে খামতি রাখতে রাজি নন বিজেপি নেতারা! এবার বিয়েবাড়িতে গিয়ে অভিনব প্রচার



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – একুশের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বাংলার মসনদ দখলই যে একমাত্র লক্ষ্য বিজেপির, তা বিভিন্ন ঘটনায় ইতিমধ্যেই প্রকাশ পেয়েছে। রাজ্য বিজেপির ওপর মহলের নেতারা থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতারা পর্যন্ত বাংলা নিয়ে একের পর এক চিন্তাভাবনা করে চলেছেন। এই অবস্থায় এবার বালুরঘাটের বিজেপির টাউন সভাপতি অভিনব উদ্যোগ নিলেন গেরুয়া শিবিরের প্রচারে। বর্তমানে চলছে বিয়ের মরসুম। এ রকমই একটি বিয়ে বাড়ির নিমন্ত্রণ তালিকায় ছিলেন বালুরঘাটের বিজেপির টাউন সভাপতি বিয়ে বাড়িতে গিয়ে তিনি উপহারস্বরূপ বিয়ের কনের হাতে তুলে দেন দলের প্রচার পুস্তিকা এবং গেরুয়া উত্তরীয়।

যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে সমালোচনা। সূত্রের খবর, যে বিয়েবাড়িতে সুমন বর্মন নামে গেরুয়া শিবিরের ওই নেতা দলের প্রচার পুস্তিকা এবং গেরুয়া উত্তরীয় উপহার হিসেবে দিয়েছেন। সেখানে আবার কনের জামাইবাবু এলাকার পরিচিত বাম নেতা। খুব স্বাভাবিকভাবেই তাই এই ঘটনায় শুরু হয়েছে গুঞ্জন। স্থানীয় রাজনৈতিক মহলেও জোরদার সমালোচনা হচ্ছে এভাবে ভোটের প্রচার চালানোর জন্য। এদিন সুমন বর্মন জানান, বিজেপি কার্যকর্তাদের এই মুহূর্তে একটাই লক্ষ্য, 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার মসনদ দখল। সুতরাং, এক্ষেত্রে প্রয়োজন ব্যাপকভাবে প্রচার। আর সেক্ষেত্রে বিয়েবাড়িতে যেহেতু অনেক মানুষ আসেন তাই সেখানে গিয়ে তিনি অভিনব উপায়ে প্রচার চালিয়েছেন।

তবে এ ব্যাপারে তাঁকে কোনরকম দ্বিধাগ্রস্ত দেখা যায়নি বরং তিনি জানিয়েছেন, আমন্ত্রণ পেয়েই তিনি এধরনের উপহার নিয়ে গিয়েছিলেন। অন্যদিকে নবদম্পতি দিবাকর ঘোষ ও শুভশ্রী ঘোষ সরকার এই ঘটনা নিয়ে বিশেষ প্রতিক্রিয়া দেখাননি। তাঁরা জানিয়েছেন, বিয়েতে তারা এ ধরনের রাজনৈতিক উপহার পেয়ে যথেষ্ট অবাক অবাক হয়েছেন। তবে তাই নিয়ে তাঁরা কোন রাজনৈতিক মন্তব্য করতে চাননি। পাশাপাশি তাঁরা জানিয়েছেন, সুমন বর্মন তাঁদের পূর্ব পরিচিত তাই বিষয়টি সাধারণভাবেই নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে বিজেপি সূত্রে বলা হয়েছে, এ ধরনের কোনো প্রচার এর নির্দেশ দলীয় নেতৃত্ত্বের তরফ থেকে দেওয়া হয়নি।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এ প্রসঙ্গে বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের সংসদ তথা বিজেপি নেতা সুকান্ত মজুমদার জানিয়েছেন, বালুরঘাট টাউন বিজেপি সভাপতি সুমন বর্মন নিজের সিদ্ধান্তে এই অভিনব প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছেন। তবে নবদম্পতি এ প্রসঙ্গে মুখ না খুললেও বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে এসে এই ঘটনা নিয়ে বালুরঘাট শহরে কিন্তু ইতিমধ্যেই ব্যাপকভাবে আলোচনা চলছে সর্বত্র। অন্যদিকে তৃণমূল ও বাম শিবির থেকেও বিজেপি নেতার এ ধরনের কীর্তিতে রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। দু’পক্ষই জানিয়েছে, সামাজিক অনুষ্ঠান কোন রাজনীতির অঙ্গ নয়। কিন্তু সেখানেও রাজনৈতিক প্রচার সারলেন বিজেপি নেতা এবং সেক্ষেত্রে তিনি যে একটু বাড়াবাড়ি করে ফেলেছেন সে ব্যাপারে একমত বাম ও তৃণমূল শিবির।

এ প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা কো-অর্ডিনেটর সুভাষ চাকি জানিয়েছেন, সামাজিক অনুষ্ঠানে গিয়ে রাজনৈতিক প্রচার চালানো বাংলার সংস্কৃতি নয়। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, গেরুয়া শিবিরের কাছে একুশের বিধানসভা নির্বাচন এই মুহূর্তে একটি প্রেস্টিজ লড়াই হিসেবে দাঁড়িয়েছে। আর তা বালুরঘাটের ঘটনা থেকেই স্পষ্ট। একুশের নির্বাচন জিততে কোনো ফাঁকফোঁকর রাখতে চাইছেনা গেরুয়া শিবির। সেক্ষেত্রে প্রচারের ক্ষেত্রেও প্রতিটি সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছে তাঁরা বলে মনে করা হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

 

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!