এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফের কেন্দ্রীয় প্রকল্পের বিরোধিতায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, সদিচ্ছা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

ফের কেন্দ্রীয় প্রকল্পের বিরোধিতায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, সদিচ্ছা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন



কেন্দ্র এবং রাজ্যের বিরোধিতার ছবি অনেক সময়ই রাজ্যবাসীর সামনে আসে। এই বিরোধিতার কারণে অনেক সময় রাজ্যবাসীর হাত থেকে অনেক সুযোগ-সুবিধা বেরিয়ে যায়। বিভিন্ন সময়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলির ক্রমাগত বিরোধিতা করে রাজ্যে চালু করতে দেননি। যেমন- কেন্দ্রীয় সরকারের আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প এ রাজ্যে চালু হয়নি। আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের মাধ্যমে স্বাস্থ্য যোজনায় 10 কোটি পরিবারে 5 লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবীমা ঘোষণা করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের এধরনের একটি প্রকল্প থাকায় কেন্দ্রীয় প্রকল্পটি চালু করতে দেননি পশ্চিমবঙ্গে। এবারও এক দেশ এক রেশন কার্ড নিয়ে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের বিরোধিতায় মুখর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এক দেশ এক রেশন কার্ড নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এই রাজ্যে এই প্রকল্প চালু করার চরম বিরোধী। এই নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে তাঁর তুমুল মতবিরোধ তৈরি হয়েছে। এ প্রসঙ্গে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, এক দেশ এক রেশন কার্ড প্রকল্প নিয়ে এখনো পর্যন্ত কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে কোনো রকম নির্দেশ বা তথ্য রাজ্য সরকারের হাতে এসে পৌঁছায়নি। কাজেই পশ্চিমবঙ্গে এই প্রকল্প চালু হচ্ছে না। উপরন্তু জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক আরো জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের দ্বারা ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য খরচ হয়েছে 200 কোটি টাকা। এর পর নতুন করে আবার যদি রেশন কার্ড তৈরি করতে হয় তাহলে অর্থ যোগান দেওয়ার মতন সামর্থ্য রাজ্য সরকারের এই মুহূর্তে নেই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বহুদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছেন, কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের বকেয়া টাকা দিচ্ছেনা। তিনি দাবি করেছেন, বহুবার তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে রাজ্যের বকেয়া নিয়ে তদবির করেছেন, কিন্তু তা সত্বেও সুফল মেলেনি। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই আবারও মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে রাজ্যের বকেয়া 50 হাজার কোটি টাকা চেয়ে পাঠিয়েছেন। অন্যদিকে, খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, এতদিনে সেই 50 হাজার কোটি টাকা পরিমাণে বেড়ে 60 হাজার কোটিতে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। এর উপরে যদি এক দেশ এক রেশন কার্ডের নতুন প্রকল্প চালু হয় তাহলে খরচার বহর বেড়ে যাবে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, দেশের সর্বত্র এক দেশ এক রেশন কার্ড কার্যকর হবে আগামী পয়লা জুন থেকে। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে 10 টি রাজ্য এক দেশ এক রেশন কার্ড প্রকল্পের আওতাভুক্ত হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে অন্ধপ্রদেশ, গুজরাট, ঝাড়খন্ড, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, তেলেঙ্গানা ও ত্রিপুরা রাজ্য। অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান এই প্রকল্প সম্পর্কে জানিয়েছেন, প্রতিটি রাজ্য থেকেই শ্রমিকশ্রেণী কর্মসূত্রে ভিন রাজ্যে যায়, সেখানে গিয়ে রেশন ব্যবস্থার পূর্ণ সুবিধা যাতে তাঁরা পান, সে কারণেই এই প্রকল্প চালু করা হচ্ছে।

তবে এই মুহূর্তে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই প্রকল্প চালু করায় রেড সিগনাল দেখানো হয়েছে। কিন্তু এই প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, পশ্চিমবঙ্গ থেকে  ভিনরাজ্যে কর্মসূত্রে যাওয়া শ্রমিকদের সংখ্যা নেহাত কম নয়। সুতরাং এক দেশ এক রেশন কার্ড প্রকল্পের আওতাভুক্ত যদি হওয়া যায় তাহলে তা কোন ক্ষতি হবে না বরং লাভ হবে। উপরন্তু গরিব শ্রমিকরা দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে রেশন সংগ্রহ করতে পারবেন। ফলে তাঁদের খাদ্য সমস্যা মিটবে। অন্যদিকে বিরোধীদের দাবি, রাজ্য সরকার শুধুমাত্র রাজনীতি করার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের এত ভাল একটি প্রকল্প চালু করতে দিচ্ছে না রাজ্যে। আপাতত পরিস্থিতির ওপর নজর রাখবে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!