এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার থেকে সিভিক ভলান্টিয়ারদের জন্য বাড়লো অস্বস্তি, নয়া পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার

এবার থেকে সিভিক ভলান্টিয়ারদের জন্য বাড়লো অস্বস্তি, নয়া পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার



সামনের পুর নির্বাচন ও বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে কলকাতা পুরসভা অভিনব উদ্যোগ নিল এবার। এতদিন যারা অন্যের উপর নজর রাখতেন, পাশাপাশি বিভিন্ন রকম কাজ করতেন, এবার তাঁদের ওপর নজর রাখার প্রয়োজন পড়েছে। আর এ ব্যাপারে সম্পূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে পুর দপ্তর থেকে। এবার থেকে সিভিক ভলান্টিয়ারদের ওপর নজর রাখবে কলকাতা পুরসভা নিরাপত্তা উপদেষ্টা। এখনো পর্যন্ত ব্যাপারটি পরিকল্পনা করা হয়েছে, তবে পরিকল্পনামাফিক যাতে কাজ তাড়াতাড়ি হয় সে ব্যাপারে নজর দেওয়া হচ্ছে।

এবার থেকে সিভিক ভলেন্টিয়াররা কি কাজ করছেন, তার ওপর সম্পূর্ণ নজর থাকবে কলকাতা পুরসভার নিরাপত্তা উপদেষ্টাদের। অতএব এবার থেকে সিভিক ভলেন্টিয়াররা যদি কোন রকম অনৈতিক কাজ করেছেন, তাহলে তাদের সাথে সাথে পুরসভার নিরাপত্তা উপদেষ্টারা ধরবেন এবং ধরা পড়লে উপযুক্ত শাস্তি যে হবে সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। আপাতত সিভিক ভলেন্টিয়ারদের ওপর নজরদারি নিয়ে পুর ভবনে চর্চা অব্যাহত। অন্যদিকে রাজনৈতিক মহলেও এ ব্যাপারে আলোচনা হচ্ছে।

সাধারণত সিভিক ভলেন্টিয়ার এর কাজ হচ্ছে পৌরসভার বিভিন্ন দপ্তরে সাধারণ মানুষের ওপর নজর রাখা। এছাড়াও অন্যান্য নানা কাজে যুক্ত থাকেন তাঁরা। পুর ভবন ছাড়াও পুরসভার বিভিন্ন অফিসে তাঁরা কাজে যান। অন্যদিকে সূত্রের খবর, পুর ভবনের অফিসগুলিতে সাধারণ মানুষের আসা-যাওয়ার ওপরে বিধি-নিষেধ আরো কড়াকড়ি করতে চাইছে সরকার। সে কারণে এবার তাঁদের উপর কড়া নজর রাখা অর্থাৎ সিভিক ভলান্টিয়ারদের ওপরেও নজরদারি চালানোর কাজ শুরু হচ্ছে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পুরসভা সূত্রে জানানো হয়েছে, আগেও এই নজরদারির কাজ করা হয়েছে। কিন্তু এবার ব্যবস্থা পাকাপোক্ত করতে সিভিক ভলেন্টিয়ারদের ওপর নজরদারি চালানোর জন্য কোন বিশেষ কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, জানা গেছে নজরদারি চালানোর কাজেও আবার দুটি ভাগ করা হয়েছে। যেসব সিভিক ভলেন্টিয়াররা পুরসভার অফিসগুলিতে কাজ করে, তাদের ওপর নজরদারি চালাবে সেই অফিসের নিরাপত্তা উপদেষ্টা। অন্যদিকে, কলকাতা পুরসভার মূল ভবন অর্থাৎ এস এন ব্যানার্জি রোড এর উপর যে ভবনটি রয়েছে, সেখানে সিভিক ভলেন্টিয়ারদের ওপর নজরদারি চালাবে অ্যাসিস্ট্যান্ট সিকিউরিটি অফিসাররা।

যদিও এতদিন পরে সিভিক ভলেন্টিয়ারদের ওপর নজরদারি চালানোর ব্যাপারটি এখনো পরিষ্কার হয়নি রাজনৈতিক মহলের কাছে। তাই এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলেও কৌতুহলের শেষ নেই। অন্যদিকে, রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে রাজ্যের সামনে এখন পরপর দুটি গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। একটি হল পুরনির্বাচন প্রথমে এবং পরে দ্বিতীয়টি বিধানসভা নির্বাচন। সেদিকে নজর দিয়েই সরকার পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আপাতত এই পুরো পরিস্থিতির ওপর নজর রাখবে রাজ্যের ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!