এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নেওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ খোদ রাজ্য বিজেপি সভাপতির, অস্বস্তি গেরুয়া শিবিরে

এবার স্বাস্থ্যসাথী কার্ড নেওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ খোদ রাজ্য বিজেপি সভাপতির, অস্বস্তি গেরুয়া শিবিরে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে সরকার’ এবং ‘স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প’ বর্তমানে ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলেছে রাজ্যে। ইতিমধ্যেই ‘স্বাস্থ্যসাথী’ প্রকল্পে নাম লিখিয়েছেন বহু মানুষ। যদিও রাজ্যের গেরুয়া শক্তি ক্রমাগত রাজ্য সরকারের বর্তমান এই দুটি জনপ্রিয় প্রকল্পের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু বিজেপি নেতাদের বিরোধী প্রচারের মধ্যেই সামনে এসেছে এবার অন্য চাঞ্চল্যকর তথ্য। গতকাল রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের পরিবারের বেশ কয়েকজন স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করিয়েছেন। আর তার ফলে এবার পাল্টা কটাক্ষ ধেয়ে আসছে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের দিকে।

আর এই পরিস্থিতিতে এবার দিলীপ ঘোষ স্বাস্থ্যসাথী নিয়ে নিজের কথা পাল্টে ফেললেন। এবার তিনি জানালেন, স্বাস্থ্যসাথীর বিরোধী তিনি নন। স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করানো নিয়ে দিলীপ ঘোষের কাছে যখন প্রশ্ন রাখা হয়, তখন তিনি কিছুটা বেসামাল উত্তর দেন। একদিকে যেমন তিনি বলেন, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড এর তিনি বিরোধিতা করছেন না। অন্যদিকে তিনি বলতে থাকেন, সরকারের প্রতারণার বিরোধিতা করছেন। এবং উল্লেখযোগ্যভাবে এদিন তিনি বলেন, স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করার সুযোগ পেলে তিনিও করাবেন। তবে তিনি রাজ্য সরকারের কাছে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড পেয়ে যদি কেউ সুযোগ না পায় সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নেওয়ার কোনো মানে হয় না।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে এ ক্ষেত্রে রাজনৈতিক মহলের প্রশ্ন, যদি স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের কোনরকম গুরুত্বই না থাকে তাহলে দিলীপ ঘোষ নিজে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করাতে চাইছেন কেন? প্রসঙ্গত, শুধু রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের বাড়িতেই নয়, ঝাড়গ্রামের জেলা বিজেপি সভাপতিও স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করিয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যের প্রথম সারির বিজেপি নেতার পরিবারের সদস্যরা স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করানো নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে তুমুল সমালোচনা। অন্যদিকে শাসকদলও এবার রাজ্য বিজেপি সভাপতিকে ছেড়ে কথা বলছে না। 

বিশেষজ্ঞদের মতে, রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প যে দলমত নির্বিশেষে সবার মধ্যে সাড়া ফেলেছে তা এই ঘটনায় পরিষ্কার। এদিকে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের পরিবারের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড গ্রহণ করায় গেরুয়া শিবিরের অস্বস্তি যে প্রবল সেকথা বলাইবাহুল্য। রাজ্য সরকারের প্রকল্প নিয়ে যে কটাক্ষ চলছিল গেরুয়া শিবিরের, তা কিন্তু এক কথায় তাৎপর্যহীন হয়ে পড়ল বলে মনে করা হচ্ছে। তবে দিলীপ ঘোষ স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড নিজেও করাতে চান এই বার্তা প্রেরণ করে কিন্তু রাজনৈতিক মহলে তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি করলেন।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!