এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > এবার রাজ্যের এই হেভিওয়েট মন্ত্রীর এলাকাতেও শুভেন্দু থাবা বসলেন , জেনে নিন

এবার রাজ্যের এই হেভিওয়েট মন্ত্রীর এলাকাতেও শুভেন্দু থাবা বসলেন , জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – শাসক দলের এক সময়ের দাপুটে নেতা, বর্তমানে দলের প্রতি বিমুখ পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে শাসকদল তৃণমূলের অস্বস্তি ক্রমশই বাড়ছে। রাজ্যের স্থানে স্থানে তাঁর নাম ও ছবি দেওয়া পোস্টার পড়তে দেখা যাচ্ছে। রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিনে পড়ছে শুভেন্দু অধিকারীর পোস্টার। কালীপুজোর রাতে খোদ মুখ্যমন্ত্রীর গড়ে শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দেওয়া পোস্টার পাওয়া গিয়েছিল। যা নিয়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল তৃণমূলের অন্দরে। এবার শুভেন্দু অধিকারীর পোস্টার দেখা গেল রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের এলাকাজুড়ে।

প্রসঙ্গত ইতিপূর্বেও শিলিগুড়িতে শুভেন্দু অধিকারী পোস্টার পাওয়া গিয়েছিল যে পোস্টারে
লেখা ছিল ‘আমরা দাদার অনুগামী’। এবার শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দেওয়া পোস্টার পাওয়া গেল ফুলবাড়ীর বিভিন্ন এলাকাজুড়ে। ফুলবাড়ী বিধানসভার বিধায়ক তথা রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের খাসতালুকে ফুলবাড়ির জাতীয় সড়কের ধারে ধারে শুভেন্দু অধিকারী ছবি দেওয়া পোস্টার দেখা গেল গত রবিবার। কিন্তু কারা এই পোস্টার দিল, সে সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। তবে বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট ঘোট পাকিয়েছে।

গত রবিবার ফুলবাড়ীর জাতীয় সড়কের ধারে একাধিক পোস্টার চোখে পড়লো। যেখানে শুভেন্দু অধিকারী ছবি আছে। ছবির নিচে লেখা আছে, ” গ্রাম বাংলা বলছে ভাই! আমরা সবাই দাদাকে চাই! দরকারে পাই তাই বাংলায় চাই!” এভাবে একেবারে ছড়ার আকারে লেখা রয়েছে ছবির নিচে। যা অভূতপূর্ব।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিকে রাজগঞ্জের ব্লক তৃণমূল সভাপতি দেবাশীষ প্রামাণিক মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করলেন যে, শুভেন্দু অধিকারীর জনপ্রিয় নেতা যেন কোনভাবে দলের প্রতি বিমুখ হয়ে, তৃণমূল দল ছেলে না চলে যান। পোস্টার দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি জানালেন যে, কারা ফুলবাড়ি এলাকায় শুভেন্দু অধিকারীর নামে পোস্টার দিয়েছে। তা তিনি জানেন না। কিন্তু শুভেন্দু অধিকারী হলের একজন লড়াকু নেতা। তাই মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাঁর প্রার্থনা, তিনি যেন দল ছেড়ে চলে না যান।

ফুলবাড়ী এলাকাতে শুভেন্দু অধিকারীর পোস্টার দেওয়া সম্পর্কে বিজেপির দিকে আঙ্গুল তোলা হলে, এই পোস্টার দেওয়ার ব্যাপারে বিজেপির কোন হাত নেই বলে জানানো হলো বিজেপির পক্ষ থেকে। এ প্রসঙ্গে দার্জিলিং বিজেপির জেলা সম্পাদক রাজু সাহা জানালেন যে, শুভেন্দু অধিকারীর পোস্টার দেওয়ার সঙ্গে বিজেপির কোনো সম্পর্কই নেই। তবে আগামী দিনে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জর্জরিত হয়ে তৃণমূল দলটা এভাবেই শেষ হয়ে যাবে।

এদিকে দলে থেকেও দলের সঙ্গে সম্পর্ক একেবারে তলানিতে চলে গেছে শুভেন্দু অধিকারীর। আগামী দিনে তিনি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছেন? সেদিকে তাকিয়ে আছে বিভিন্ন মহল। নন্দীগ্রামে শহীদ দিবস পালন করেছেন তিনি। সেখান থেকে তিনি জানিয়েছিলেন যে, নন্দীগ্রাম কারো একার নয়। প্রসঙ্গত দলের ও প্রশাসনের বিভিন্ন রকম সভায় উপস্থিত থাকছেন না তিনি। বরং, নিজের উদ্যোগে একাধিক সভা করছেন তিনি। যার ফলে অস্বস্তি বাড়ছে শাসকদলের। শুভেন্দু অধিকারী যদি দল ছেড়ে দেন, তবে শাসকদল তৃণমূল যে যথেষ্ট বিপাকে পড়বে, তা নিয়ে একমত অনেকেই

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!