এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > তৃণমূল সরকারের চূড়ান্ত অসৌজন্যতা! ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বিজেপি সাংসদ! জঙ্গলমহলে তুলকালাম!

তৃণমূল সরকারের চূড়ান্ত অসৌজন্যতা! ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বিজেপি সাংসদ! জঙ্গলমহলে তুলকালাম!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বর্তমানে চলছে ঝাড়গ্রামে জঙ্গলমহল উৎসব। আর সেই উৎসবে ডাক না পাওয়ায় জঙ্গলমহলের বিজেপি সাংসদ কুনার হেমব্রম তাঁর ক্ষোভ উগরে দিলেন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। বুধবার থেকে শুরু হয়েছে সপ্তম বর্ষের জঙ্গলমহল উৎসব। এই উৎসব উদ্বোধনে আসার কথা শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। খুব স্বাভাবিকভাবেই এই অনুষ্ঠান নিয়ে তৃণমূল শিবিরে চলছে হইচই। কিন্তু তার মধ্যে কোথাও যেন তাল কেটে গেল কুনার হেমব্রমের ক্ষোভের কারণে। প্রসঙ্গত, উনিশ এর লোকসভা নির্বাচনে জঙ্গলমহল থেকে প্রায় হারিয়ে যায় তৃণমূল।

সে জায়গায় জঙ্গলমহলে ঘাঁটি গড়ে গেরুয়া শিবির। জানা গিয়েছে, তৃণমূল সাংসদ কুনার হেমব্রম এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ না পেলেও তিনি উদ্বোধনের আগে অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণে আসেন এবং দর্শকাসনে 30 মিনিটের জন্য বসেন। এরপরেই তিনি অনুষ্ঠানস্থল ছেড়ে চলে যান। স্বাভাবিকভাবেই স্থানীয় সাংসদ হওয়া সত্ত্বেও তিনি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ না পাওয়া নিয়ে ক্ষোভ চেপে রাখতে পারেননি। অন্যদিকে সাংসদের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, তাঁকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি, তিনি নিজের ইচ্ছায় অনুষ্ঠানস্থলে এসেছিলেন।

এবং এর পরেই তিনি বিস্ফোরকভাবে বলেন, রাজ্য সরকার কিংবা সরকারের কোনো রকম সৌজন্য নেই। কুনার হেমব্রম শুধুমাত্র তাঁকে আমন্ত্রণ করা না নিয়ে ক্ষোভ উগড়ানোর পাশাপাশি রাজ্য সরকারের বিবিধ মেলা অনুষ্ঠানের আয়োজন নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, জঙ্গলমহল উৎসবের আয়োজন ঠিকমত করা হয়নি বরং সংস্কৃতির নামে রাজ্য সরকার অপসংস্কৃতির প্রচার চালাচ্ছে। খুব স্বাভাবিকভাবেই তৃণমূল সাংসদের এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে শুরু হয়েছে রাজ্য জুড়ে চাঞ্চল্য।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কয়েকদিন আগেই পুরুলিয়ায় আসেন এবং একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। কুনার হেমব্রম এদিন তৃণমূল নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই কর্মকাণ্ডের তীব্র বিরোধিতা করেছেন এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এদিন তৃণমূল সাংসদ স্পষ্ট ভাষায় বলে দিলেন, রাজ্য সরকার বাংলার উন্নয়নের কোনো কাজ করেনি। শিলান্যাস করা হলেও একাধিক প্রকল্পের বাস্তবায়ন ঘটেনি বলে দাবি করেছেন তৃণমূল সাংসদ।

স্বাভাবিকভাবেই বিধানসভা নির্বাচনের আগে জঙ্গলমহলে বিজেপি সাংসদের এহেন বিক্ষুব্ধ আচরণে তোলপাড় শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। প্রশ্ন উঠেছে, তৃণমূল কংগ্রেস বারবার বিজেপির দিকে অসৌজন্যের জন্য আঙ্গুল তোলে! কিন্তু এবার সেই অসৌজন্যের পাল্টা অভিযোগ লাগল তাদেরই দিকে, যা বিধানসভা নির্বাচনের আগে যথেষ্ট অস্বস্তিতে ফেলতে পারে শাসকদলকে বলে অভিমত রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!