এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার কি দলবদলুদের ঘরে ফেরার পালা? গেরুয়া শিবিরে চলছে কানাঘুষো, আটকাতে প্রস্তুত বিজেপি

এবার কি দলবদলুদের ঘরে ফেরার পালা? গেরুয়া শিবিরে চলছে কানাঘুষো, আটকাতে প্রস্তুত বিজেপি



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – 2019 এর লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছিল তৃণমূলের ভাঙন। লোকসভা নির্বাচনে উল্লেখযোগ্য ভালো ফল করে বিজেপি পৌঁছায় 3 থেকে 18। এবং একই সাথে শুরু করে তৃণমূল দূর্গে একের পর এক আঘাত। মুকুল রায় থেকে শুরু করে একের পর এক তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতারা দল ছাড়েন সেসময়, যা বহাল থাকে একুশের নির্বাচনের আগে পর্যন্ত। ক্রমাগত তৃণমূলের বিধায়ক, নেতা, মন্ত্রী ভাঙাতে শুরু করে গেরুয়া শিবির। অন্য দল থেকে আসা নেতা মন্ত্রীদের অনেকেই আবার এই বিধানসভা নির্বাচনে টিকিটও পেয়েছিলেন। কিন্তু একুশের বিধানসভা নির্বাচনের সমস্ত হিসাব-নিকাশ পাল্টে যায়।

প্রায় তাসের ঘরের মতো হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে বিজেপির ভোটের দাবী। পাশাপাশি বিপুল ভোটে জয়লাভ করে তৃতীয় বারের জন্য বাংলার মসনদ দখল করেছে তৃণমূল। কিন্তু এরপরে শুরু হয়েছে গেরুয়া শিবিরের অন্য ভয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করে এখন নিজেরাই ভাঙন আতঙ্কে ভুগতে শুরু করেছে গেরুয়া শিবির। সূত্রের খবর, গেরুয়া শিবিরের অন্দরে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, রাজনৈতিক জগত থেকে সিনেমা জগতের অনেকেই কিন্তু তৃণমূল শিবিরে ফিরে যেতে পারেন। আর এই আশঙ্কা যত দিন যাচ্ছে, ততই প্রবল হচ্ছে। ভোট ঘোষণার আগেই বিজেপি রাজ্য জুড়ে শুরু করেছিল যোগদান মেলা।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এবং সেখানে একের পর এক রাজনৈতিক নেতানেত্রীদের সাথে একইসাথে সিনেমা জগতের কলাকুশলীদের প্রায় প্রতিদিন যোগদান করানো হয়েছে গেরুয়া শিবিরে। কিন্তু নতুনদের আগমনে বিজেপির পুরনো নেতাকর্মীরা ক্রমশ দূরে সরে গেছেন। যথারীতি দলের মধ্যেই আদি নব্য দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে। কিন্তু যে নতুনদের নিয়ে এত মাতামাতি করেছে বিজেপি নেতারা, তাঁরা কিন্তু এবার তৃণমূলের বিপুল জয়ের পর সেখানে ফিরে যেতে পারেন বলে মনে করছে বিজেপি নেতৃত্ব। আর তাই নিচুতলার কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে এবং তাঁদের নিরাপত্তা দিতে এখন গেরুয়া শিবির ব্যস্ত। অন্যদিকে, দলে যাতে কোনো ভাঙন না হয়, সেজন্য এবার বিজেপি আগাম পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বলে শোনা যাচ্ছে।

পাশাপাশি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এদিন জানিয়েছেন, যারা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসেছিলেন তাঁরা অপমানিত হয়ে এসেছিলেন গেরুয়া শিবিরে। তাঁরা বিজেপিতে সম্মান পেয়েছেন, তাহলে শুধু শুধু কেন তাঁরা তৃণমূলে ফিরে যাবেন বলে দিলীপ ঘোষ পাল্টা প্রশ্ন করেছেন। তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজ্যবাসীর একটা প্রবল ক্ষোভ একসময় কাজ করেছে। মনে করা হচ্ছিল, 2021 এ তৃণমূল আর ক্ষমতায় ফিরবে না।

কিন্তু সেখানেই কাজ করে গেছে মমতা-ম্যাজিক, যা মোদি ম্যাজিককে প্রায় গোহারান হারিয়ে দিয়ে জিতে গেছে। সুতরাং, তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওপর আবার কি পুরনো বিশ্বাস ফিরে আসবে দলবদলুদের? পাশাপাশি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিন্তু গতকাল সাংবাদিক বৈঠকে দলছেড়ে যাওয়া নেতা নেত্রীদের ফিরে আসার ব্যাপারে ইতিবাচক ইঙ্গিত দিয়েছেন। আর সেই ইঙ্গিতই গেরুয়া শিবিরের কাছে ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মাথা চাড়া দিয়েছে ঘর ভাঙার আতঙ্ক।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!