এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এবার কি বাতিল হতে চলেছে দুহাজারি নোটও? শুরু তীব্র জল্পনা

এবার কি বাতিল হতে চলেছে দুহাজারি নোটও? শুরু তীব্র জল্পনা



2016 সালের 8 নভেম্বর রাতে জাতির উদ্দেশে ভাষণে মহাত্মা গান্ধী সিরিজের পাঁচশ টাকা ও হাজার টাকার নোট বাতিলের কথা ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিমুদ্রাকরণের জেরে প্রাথমিকভাবে সমস্যায় পড়তে হয়েছিল নাগরিকদের। শ্রমিক শ্রেণী থেকে ব্যবসায়ী মহলে নোট বন্দির ধাক্কা লেগেছিল। ভারতে আবার নোট বাতিলের ঘটনা ঘটতে চলেছে, এমন একটি খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় চাউর হয়েছে সম্প্রতি। বলা হচ্ছে, এবার 2000 টাকার নোট বাতিল করতে চলেছে আর বি আই। সত্যিই কি আর বি আই এমন কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে? উত্তর খুঁজে নেওয়া যাক।

এবার সরকারের হাতে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। বলা হচ্ছে, হিসাব বহির্ভূত আয় লুকানোর জন্য বহুলাংশে 2000 টাকার নোট ব্যবহার হচ্ছে। আয়কর বিভাগের সদ্য প্রকাশিত রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে চলতি আর্থিক বছরে যেসব হিসাব বহির্ভূত আয় বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, তার 60 শতাংশেরও বেশি 2000 টাকার নোটে উপস্থিত ছিল। ঘটনা সামনে আসার সাথে সাথেই জোর চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে দেশজুড়ে। সূত্রের খবর, 2019 এর 31 শে মার্চ পর্যন্ত মোট 3291 মিলিয়ন 2000 টাকার নোট বাজারে রয়েছে। এর মূল্য 6582 বিলিয়ন টাকা বলে জানা গেছে। অর্থমন্ত্রক থেকে দাবি করা হয়েছে, এই 2000 টাকার নোট গুলি ভারতীয় মুদ্রার ক্ষেত্রে মাত্র 3%। তবে দেখা যাচ্ছে এটি ভারতের অর্থনীতির 31.2 শতাংশ।

সম্প্রতি রাজ্যসভায় হিসাব বহির্ভূত আয় সম্পর্কে আলোচনায় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছেন, দেশের যত জায়গা থেকে 5 কোটি টাকার বেশি অর্থ বাজেয়াপ্ত হয়েছে, সব জায়গায় দেখা গেছে 2000 টাকার নোটের রূপে 67.91 শতাংশ টাকা লুকানো ছিল। এই পরিসংখ্যানটি তিনি 2017-18 সালের দিয়েছেন। পরবর্তীকালে এই সংখ্যাটা কম হয়েছে অবশ্যই, কিন্তু পরিমাণ অনেকটাই। 2018-19 সালে আর্থিক বর্ষে মোট বাজেয়াপ্ত টাকা 65.93% 2000 টাকার নোট ছিল, সে ক্ষেত্রে চলতি আর্থিক বছরে এখনও পর্যন্ত যা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে তার মধ্যে দেখা গেছে 43.22 শতাংশ টাকা 2000 টাকার নোট।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী 2016 সালের 8 নভেম্বর জাতির উদ্দেশ্যে ঘোষণা করেন 500 ও হাজার টাকার নোট বাতিল হবে দেশের কালোটাকা আটকাতে। সেই নোট বাতিলের এ বছর তিন বছর পূর্ণ হল। এই উপলক্ষে বিরোধীরা সুর চড়াতে থাকেন। বিরোধীদের বিক্ষোভ আরো প্রবল হয় যখন জানা যায়, প্রাক্তন অর্থনৈতিক সচিব এস সি গর্গ বলেন, “বিপুল সংখ্যক 2000 টাকার নোট আসলে বাজারে নেই। সেগুলিকে গোপনে মজুদ রাখা হয়েছে।” এরপর তিনি 2000 টাকার নোট বাতিলের পক্ষে সওয়াল করেন।

এদিকে 2000 টাকার নোটে কালোবাজারির কথাটি সামনে আসার সাথে সাথেই সরকারের তরফ থেকে 2000 টাকার নোট ছাপানো কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর জেরেই সবার মাথায় এখন একটাই চিন্তা, তাহলে কবে 2000 টাকার নোট বাজার থেকে উঠতে চলেছে? এরই মাঝে ইনকাম ট্যাক্স অ্যাক্ট 1961 তে বেশকিছু রদবদল করা হয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। যে সব ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে লেনদেন 50 কোটি টাকা ছাড়িয়ে যায় তাদের ক্ষেত্রে এবার থেকে ই-মাধ্যম বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। অন্যদিকে, ধর্মীয় সংগঠনকে দানের ব্যাপারেও সরকার কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে। এবার থেকে কোন ধর্মীয় সংগঠনকে নগদ 10000 টাকা দেওয়া যাবেনা। তা কমিয়ে 2 হাজার টাকা করা হয়েছে সরকারের তরফ থেকে।

এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ম্যাসেজ ভাইরাল হয়েছে। বাজার থেকে আরবিআই 2000 টাকার নোট তুলে নিতে চলেছে বলে দাবি করা হয়েছে এই মেসেজে। বলা হচ্ছে, 10 অক্টোবরের পরে গ্রাহকরা আর 2000 টাকার নোট ব‍্যবহার করতে পারবেন না। এখানে আরও দাবি করা হয়েছে, মাত্র 10 দিন সময় পাবেন জনসাধারণ টাকা বদলানোর জন্য। এর ফলে আবারও নোট বাতিলের আতংক ফিরে এসেছে জনমানসে। তবে আরবিআই এর তরফ থেকে এখনো পর্যন্ত দুই হাজার টাকার নোট বাতিল সংক্রান্ত কোন নির্দেশিকা আসেনি। তাই পুরো ব্যাপারটিকেই গুজব বলেই উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। আপাতত সমগ্র পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে দেশের ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!