এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > এবার চতুর্থ দফার আগে স্বয়ং তৃণমূল সুপ্রীমো বড়সড় বিপর্যয়ের মুখে, সৌজন্যে গেরুয়া শিবির

এবার চতুর্থ দফার আগে স্বয়ং তৃণমূল সুপ্রীমো বড়সড় বিপর্যয়ের মুখে, সৌজন্যে গেরুয়া শিবির



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – এবারের নির্বাচন ঘিরে প্রথম থেকেই অশান্তি। অভিযোগ উঠেছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দিকেও। তৃণমূলের অভিযোগ কেন্দ্রীয় বাহিনী থেকে ভোটারদের প্রভাবিত করা হচ্ছে। আর আজকের জনসভা থেকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরাসরি সাধারণ মানুষকে সিআরপিএফকে ঘেরাও করার কথা বলেন। 

তিনি বলেন, একদল সিআরপিএফকে ঘেরাও করে যেন অন্যদল ভোট দিতে যায়। ভোট যাতে নষ্ট না হয় সেদিকে নজর রাখতে বলেছেন তৃণমূল নেত্রী। আর তৃণমূল নেত্রীর এই বক্তব্যকে এবার হাতিয়ার করে গেরুয়া শিবির গেল কমিশনে। কোচবিহারের সভা থেকে যেভাবে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিআরপিএফ ঘেরাও করার কথা বলেছিলেন, তার প্রতিবাদ করতেই এবার নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি।

চতুর্থ দফা ভোটের আগে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভোটারদের উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ আনল গেরুয়া শিবির। ইতিমধ্যেই জেলাশাসকের কাছেও এই নিয়ে রিপোর্ট তলব করেছে নির্বাচন কমিশন বলে জানা গিয়েছে। এদিন কোচবিহারের জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেছেন, কেন্দ্রীয় বাহিনী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কথা অনুযায়ী কাজ করছে। যে কারণে গ্রাম গঞ্জের মহিলারা ভোট দিতে যেতে পারছেন না। তাই চতুর্থ দফার ভোটে যাতে কেন্দ্রীয় বাহিনী কোনো রকম বাধা সৃষ্টি করতে না পারে, তার জন্য তৃণমূল নেত্রী রাজ্যের মহিলা ভোটারদের আহ্বান করেন প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এক্ষেত্রে মহিলাদের তিনি সিআরপিএফ ঘেরাও করার কথা বলেন যাতে একটিও ভোট নষ্ট না হয়। অন্যদিকে এদিন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল আরামবাগে সুজাতা মন্ডল খাঁয়ের ওপর আক্রমণ করা নিয়ে পুলিশকে নিশানায় রেখে অভিযোগ করেছেন তৃণমূল নেত্রী। যেভাবে সুজাতাকে বাঁশ নিয়ে তেড়ে আসা হয়েছিল তাতে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে তিনি শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। একই সাথে তিনি বলেছেন, ভোটের সময় পুলিশ বিজেপির হয়ে কাজ করে। এ প্রসঙ্গে আরামবাগের ওসিকে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এদিন বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার রীতিমতো সাংবাদিক বৈঠক করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কড়া সমালোচনা করেন।

একইসাথে অভিযোগ করেন কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীকে যেভাবে তৃণমূল নেত্রী ঘেরাও করার পরামর্শ দিচ্ছেন সাধারণ মানুষকে, তাতে ভোটারদের উস্কানি দেওয়া হচ্ছে। একই সাথে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংবিধান বিরোধী কাজ করছেন বলেও দাবী করা হচ্ছে। তাই বিজেপির পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনে এবার তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে আরো একটি অভিযোগ। এবার নির্বাচন কমিশন তৃণমূল নেত্রীকে আদৌ রাষ্ট্রদ্রোহী হিসাবে বিবেচনা করে কিনা সেটাও দেখার। সেক্ষেত্রে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে কিনা, সেদিকেও নজর থাকবে ওয়াকিবহাল মহলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!