এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > মোদী-ট্রাম্প বহুচর্চিত ‘দোস্তি’ কি খাদের কিনারায়? আমেরিকার প্রেসিডেন্টের পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন

মোদী-ট্রাম্প বহুচর্চিত ‘দোস্তি’ কি খাদের কিনারায়? আমেরিকার প্রেসিডেন্টের পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিশ্বজুড়ে করোনার প্রভাব যে অতি মারাত্মক ছিল সে কথা আমরা সবাই জানি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে এখনো জেরবার হচ্ছে। তার মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অন্যতম দেশ বলে অভিহিত করেছেন বিশেষজ্ঞরা। অন্যদিকে বরাবরই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র করোনা পরিস্থিতির জন্য অভিযোগের আঙুল তুলে আসছে চীনের দিকে। কিন্তু এবার সেই তালিকায় ঢুকে পড়ল ভারতও। বিতর্কের মধ্যে দিয়ে মার্কিন প্রেসেডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিশজুড়ে করোনা ছড়িয়ে পড়ার জন্য অভিযুক্ত করলেন চীনসহ ভারতকেও।

আর তাই নিয়েই শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ডেমোক্র্যাট মনোনীত রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী জো বিডেন এর  সঙ্গে একটি উত্তপ্ত বিতর্কের মধ্যেই ভারতকেই অভিযুক্ত করলেন করোনা থেকে পরিবেশ নষ্ট সবকিছুতেই। মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প এবার করোনার জন্য সোজাসুজি ভারত ও চীনকে দোষারোপ করলেন বলে জানা গিয়েছে।  সম্প্রতি রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী জো বিডেন করোনা মহামারীতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ বলে অভিহিত করে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে কাঠগড়ায় তোলেন।

তখনই ট্রাম্প এশিয়ার অন্যতম দুই দেশ চীন এবং ভারতের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলেন বলে জানা গেছে। তাঁদের ঘাড়েই করোনার দায়ভার চাপান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখনো পর্যন্ত করোনায় সবথেকে বেশি মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। এ প্রসঙ্গে জো বিডেন প্রশ্ন তোলেন মার্কিন মুলুকের ম্ররুত্যু সংখ্যা নিয়ে, আর সে সম্পর্কে বলতে গিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প সোজাসোজি চীনের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলেন। তবে চীনের সাথে সাথে তিনি ভারতের কথাও বলেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তাঁর মতে চীন, রাশিয়া এবং ভারতে করোনায় কত লোক মারা গিয়েছে সে তথ্য নাকি তাঁরা গোপন করেছে। অন্যদিকে করোনা মোকাবিলায় ডোনাল্ড ট্রাম্প যে ব্যর্থ, সে ব্যাপারে পুরোপুরি নিশ্চিত মতামত দেন জো বিডেন। তাঁর কথায়, ডোনাল্ড ট্রাম্প কেবল নিজের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিয়েই ব্যস্ত। অন্যের কথা চিন্তা করেন না তিনি। যদিও পাল্টা ডোনাল্ড ট্রাম্প এপর বলেন, জো বিডেন যদি প্রেসিডেন্ট হতেন তাহলে মার্কিন মুলুকে প্রায় 20 কোটি মিলিয়ন মানুষ মারা যেত।

অন্যদিকে করোনার পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তন নিয়েও মার্কিন প্রেসিডেন্ট সোজাসুজি অভিযুক্ত দেশ হিসেবে ভারত এবং চীনের কথা বলেন। তাঁর মতে চীন, রাশিয়া এবং ভারত বাতাস দূষিত করে পরিবেশ নষ্ট করছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই মতামতের পরিপ্রেক্ষিতে ভারত জুড়ে শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। কারণ, প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী বরাবরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সখ্যতা বজায় রেখেছেন। সেক্ষেত্রে বিরোধীরা এবার পাল্টা প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে বন্ধুত্ব কি একেই বলে? তবে মার্কিন প্রেসিডেন্টের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ভারত সরকার এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!