এখন পড়ছেন
হোম > খেলা > সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মোহনবাগানের পাশাপাশি ইস্টবেঙ্গলও এবার সরকারিভাবে ISL-এ!

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মোহনবাগানের পাশাপাশি ইস্টবেঙ্গলও এবার সরকারিভাবে ISL-এ!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – ইনভেস্টরস পাওয়া থেকে শুরু করে আইএসএল খেলা সমস্ত কিছুই যেন স্বপ্নের মত সফল হয়ে যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গলের জন্য। কিছুদিন আগে যে দলের ইনভেস্টরস পাওয়া যাচ্ছিল না, সেখান থেকে শুরু করে মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ এবং সৌরভ গাঙ্গুলীর তৎপরতায় আইএসএলে যোগদান এবং সমস্ত নথিপত্রের যথাযথ কাজ সেরে সরকারিভাবে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের অংশ হয়ে উঠলো ইস্টবেঙ্গল। এরআগেই মোহনবাগানের নাম আইএসএল খেলাতে ঘোষণা করা হয়েছিল। এবার ইস্টবেঙ্গলেরও তার সঙ্গে সংযুক্তিকরণ ঘটায়, ফুটবল সমর্থকদের মনে যে আলাদা আনন্দ তৈরি হয়েছে, সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

এদিন, এফএসডিএলের তরফে ঘোষণা করা হয় যে, “শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গল ফাউন্ডেশন” ইস্টবেঙ্গল ফুটবল ক্লাবের সিংহভাগ শেয়ার কেনা এবং সফলভাবে সব শর্ত মেনে বিড পেপার জমা দিয়েছে। তাই তাদের আইএসএলে স্বাগত জানানো হচ্ছে। আইএসএলের সপ্তম সংস্করণের একাদশ দল হিসেবে চিহ্নিত হবে এই লাল-হলুদ শিবির। এফএসডিএলের চেয়ারপার্সন নীতা আম্বানি এদিন আরও বলেন যে, এটা আইএসএলের জন্য আনন্দের এবং গর্বের বিষয় যে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব এবং তার লক্ষ লক্ষ লাল-হলুদ সমর্থককে এই লিগে স্বাগত জানানো সম্ভব হয়েছে। ইস্টবেঙ্গল এবং মোহনবাগান দুই ঐতিহাসিক ক্লাবের আইএসএলে সংযুক্তিকরণ ভারতীয় ফুটবলের জন্য যে নতুন দিগন্ত খুলে দেবে, তা নিশ্চিত। বিশেষ করে প্রতিভার বিকাশের ক্ষেত্রে তো বটেই। ভারতীয় ফুটবলে বাংলার অবদান অনস্বীকার্য। গোটা দেশে আইএসএলের এই ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তা দেশে উন্নত ফুটবলের পরিবেশ তৈরি করতে সাহায্য করবে বলেই মনে করেন তিনি।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আইএসএল খেলতে গিয়ে সমস্যা একের পর এক এসেছে ইস্টবেঙ্গলের জন্য। কিছুদিন আগেই ইনভেস্টর পাওয়ার পর নিয়ম মেনে কাগজপত্র তৈরি করতে গিয়েই তৈরি হয়েছিল নতুন বিপদ। প্রতি পদে দেখা যাচ্ছিল, বহু কাগজপত্র পরিবর্তন দরকার। যা তৈরি করা সম্ভব ছিল না তখন। অন্যদিকে, ফেডেরশন সচিব জানিয়েছিলেন যে ‘শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গল ফাউন্ডেশন’ নামে নতুন যে কোম্পানির মাধ্যমে আইএসএল খেলার পরিকল্পনা হচ্ছে, সেই কোম্পানিকে আগের কোম্পানির যদি কোনও বকেয়া থাকে, তার দায়িত্ব নিতে হবে। তাই ফেডারেশন সচিবের এই চিঠি পেয়ে শ্রী সিমেন্ট কর্তৃপক্ষ পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করতে আইনজীবিদের সঙ্গে আলোচনা করবে বলে জানা গিয়েছিল। অন্যদিকে ফেডারেশনের তরফ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়।

এমন পরিস্থিতিতে, ক্লাবের নাম নিয়ে আইএসএলের নিয়ম অনুযায়ী লগ্নিকারী সংস্থার নাম ক্লাবের সঙ্গে রাখা যায় না বলেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শ্রী সিমেন্ট চুক্তিতে এটাই বলেছিল যে ইস্টবেঙ্গলের নাম পরিবর্তন করে রাখতে হবে “শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গল ফাউন্ডেশন” দল। অন্যদিকে এই নামে দল নামানো যাবে না বলে জানিয়ে দেয় আইএসএল। তার মধ্যেই পেপার জমা দিয়ে দেয় ইস্টবেঙ্গল। সেখানে তাদের আর্থিক সক্ষমতা ব্যাংক গ্যারান্টি সহ যাবতীয় নথিপত্র জমা দেওয়া হয় বলে জানা যায়। আপাতত ক্লাবের তরফ থেকে সবকিছু নির্দিষ্ট পরিকল্পনামাফিক এগোচ্ছে তেমনই খবর পাওয়া যায়। সেই হিসাবে দলের ম্যানেজার, মিডিয়া ম্যানেজার এবং অন্যান্য পদে নিয়োগের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে বলে খবর আসে। এবার সরকারি ভাবে সেই কথা ঘোষণা করা হয়েছে বলেই জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!