এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দুয়ারে সরকার কর্মসূচি নিয়ে বিপাকে বিধায়ক, একগুচ্ছ প্রশ্নের মুখে অস্বস্তি বাড়লো

দুয়ারে সরকার কর্মসূচি নিয়ে বিপাকে বিধায়ক, একগুচ্ছ প্রশ্নের মুখে অস্বস্তি বাড়লো



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – মুখ্যমন্ত্রীর দুয়ারে সরকার কর্মসূচি নিয়ে একদিকে যেমন মানুষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা গেছে, ঠিক তেমনই সেইসঙ্গে এই প্রকল্প নিয়ে মানুষের মধ্যে অশান্তি লক্ষ্য করা গেছে বলেও জানা যায়। সেখানে কিছুদিন আগেই দীর্ঘদিন রাস্তার কাজ থমকে থাকা নিয়ে অভিযোগ জানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির প্রচারে বাধা দিতে দেখা গেছে আউশগ্রাম ১ ব্লকের দিগনগর ২ পঞ্চায়েতের লক্ষ্মীগঞ্জের কিছু বাসিন্দাকে।

গ্রামের বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় সোমাইপুর থেকে লক্ষ্মীগঞ্জ পর্যন্ত প্রায় ছ’কিলোমিটার রাস্তা তৈরির কাজ প্রায় চার বছর ধরে থমকে রয়েছে। সেখানে ঝাড়গোড়িয়া, চণ্ডীডাঙা, মাঝেরগ্রাম, লক্ষীগঞ্জ, সোমাইপুর, যাদবগঞ্জ, কুমারগঞ্জের মতো গোটা পনেরো গ্রামের হাজারখানেক বাসিন্দাকে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে বলেই জানিয়েছিলেন তাঁরা।

সেইসঙ্গে সম্প্রতি পাথর ফেলার পরে, রাস্তার কাজ সম্পূর্ণ না করেই ঠিকাদার সংস্থার লোকজন চলে গিয়েছেন বলেই অভিযোগ করতে দেখা গিয়েছিল তাঁদের। তাঁদের দাবি ছিল এর ফলে, যাতায়াত করা আরও মুশকিল হয়েছে। আর এর ফলেই ক্ষোভ প্রকাশ পেয়েছিল স্থানীয় বাসিন্দাদের কথায়। তাঁদের দাবি ছিল, প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে বারবার অভিযোগ করেও কাজ হয়নি।

আপনার মতামত জানান -

তবে আউশগ্রামের পর এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুয়ারে সরকার কর্মসূচি নিয়ে অভিযোগ আনতে দেখা গেছে করণদিঘির মানুষদের। জানা গেছে, করণদিঘির লাহুতারা-২ গ্রাম পঞ্চায়েতে কামারতোর হাইস্কুলে শুক্রবার ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। আর সেখানে এসে বাসিন্দাদের প্রশ্নের মুখে পড়তে দেখা গেছে করণদিঘির বিধায়ক মনোদেব সিংহকে।

সেখানে এলাকার বাসিন্দারা টাকা জমা দিয়েও শৌচাগার না পাওয়া, আবেদন করেও সরকারি ঘর না পাওয়া, পানীয় জলের সমস্যা, বিধবা ও বার্ধক্যভাতা না পাওয়া-সহ একাধিক বিষয়ে বিধায়ককে অভিযোগ জানিয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে বিধায়ক এই বিষয়গুলি দেখার ও ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানা গেছে। ওই শিবিরে বিডিও-সহ প্রশাসনের অন্যন্য আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

এই ঘটনায় তাঁরাও দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেছেন বলে জানা গেছে। এই প্রসঙ্গে বিধায়ক বলেন, সাধারণ মানুষ যাতে পরিষেবা পান, তাই মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি চলছে। অনেকে সমস্যার কথা বলেছেন। সেগুলো মেটাবার চেষ্টা করা হবে। তবে সেইসঙ্গে এলাকাগুলিতে রাস্তাঘাট, পানীয় জলের অনেক উন্নতি হয়েছে বলেও এদিন জানান তিনি।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সেইসঙ্গে ইসলামপুর মহকুমা মহকুমাশাসক সপ্তর্ষি নাগ জানিয়েছেন, প্রকল্পের উপভোক্তারা শিবিরের মাধ্যমে প্রকল্পগুলি জেনে নাম নথিভুক্ত করছেন। এছাড়া কোনও অভিযোগ থাকলে তা নিয়েও পরবর্তীতে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেই জানান তিনি। তবে ওই এলাকার এক বাসিন্দার কথায়, তিনি বার্ধক্য ভাতার জন্য আবেদন করেছিলেন।

কিন্তু বার্ধক্যভাতা মেলেনি বলেই অভিযোগ করেন তিনি। এ দিন বিধায়ককের সামনে তিনি সেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বলে জানা গেছে। শিবিরে বসে এদিন বিধায়ক তাঁর ফর্ম পূরণ করে দেন।

সেইসঙ্গে এলাকার অন্য এক বাসিন্দা অভিযোগে করেন, তাঁর বাড়িতে শৌচাগার নেই। জন প্রতিনিধি ও পঞ্চায়েতে জানিয়েও কোনো লাভ না হওয়ায়, তিনি অন্যের বাড়িতে গিয়ে শৌচকর্ম করেন বলেই জানান তিনি। এছাড়া এলাকার রেশন ব্যবস্থা নিয়েও বাসিন্দাদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

রেশন ডিলারের বিরুদ্ধেও অভিযোগ উঠতে দেখা গেছে। সেইসঙ্গে বালিচার গ্রামের রাস্তা, পানীয় জলের সমস্যা রয়েছে বলেও অভিযোগ করতে দেখা গেছে অনেক বাসিন্দাকেই। এ দিনের শিবিরে স্বাস্থ্যসাথী এবং খাদ্য সাথী স্টলে ভিড় লক্ষ্য করা যায়।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!