এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দুর্নীতির পাশাপাশি রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ রাজ্যপালের

দুর্নীতির পাশাপাশি রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ রাজ্যপালের



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – এমনিতেই রাজ্যপাল বনাম রাজ্য সরকারের রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব সব সময় সংবাদ শিরোনামে থাকে। সম্প্রতি বিভিন্ন ইস্যুতে রাজভবনের সঙ্গে রাজ্য সরকারের মতভেদ চলছিলই নরমে-গরমে। তার মধ্যেই বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে নতুন করে রাজ্যপালের সাথে শাসকদলের টানাপোড়েন শুরু হয়। আর তাই নিয়েই এইবার বিরোধিতা উঠলো তুঙ্গে। সম্প্রতি রাজ্য কেন্দ্র দ্বন্দ বাঁধে ইউজিসি নির্দেশিকা নিয়ে। আর সেই সময় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর পুরো ব্যাপারটি মধ্যস্থতা করতে মনস্থির করেন।

সেই অনুযায়ী তিনি রাজ্যের উপাচার্যদের নিয়ে একটি বৈঠকের আহ্বান করেন ভার্চুয়ালি। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে দেখা যায় কোন উপাচার্যই এই বৈঠকে আগ্রহী নন। আর তাই নিয়েই রাজ্যপাল সম্প্রতি প্রশাসনের প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দেন। আর এবার রাজ্যপালকে জবাব দিতে আসরে নামলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর সম্প্রতি রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, রাজনৈতিকভাবে শিক্ষাকে প্রভাবিত করা হচ্ছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তার সাথেই শিক্ষা ব্যবস্থার প্রতি দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্যপাল বলেন, বর্তমানে সরকারি কলেজে ভর্তির সময় প্রচুর টাকা নেওয়া হয়। কিন্তু এবার রাজ্যপালের অভিযোগের ভিত্তিতে পাল্টা জবাব দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, রাজ্যপাল যেভাবে সরকারকে না জানিয়ে উপাচার্যদের বৈঠকে ডেকেছিলেন, সেক্ষেত্রে উপাচার্যরা বিধিসম্মতভাবেই সে বৈঠকে যোগ দেননি। পাল্টা এদিন শিক্ষামন্ত্রী রাজ্যপালকে সত্যের অপলাপ করেন বলে অভিযোগ করেছেন।

দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের প্রতি রাজ্যপালের বিভিন্ন অভিযোগ সামনে আসছে। তবে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে যেভাবে তৃণমূল সরকারকে কোণঠাসা করে চলেন তা যে যথেষ্ট অস্বস্তিকর তা এককথায় মেনে নিচ্ছেন রাজনৈতিক মহল। তবে এবার রাজ্য শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে যেভাবে রাজ্য সরকার এবং রাজ্যপালের মধ্যে পারস্পরিক বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে, তা যে বহুদূর পর্যন্ত গড়াবে সে ব্যাপারে নিশ্চিত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!