এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > “দুর্গাপুজোর আগেই সব কৃষকদের অ্যাকাউন্টে টাকা পৌঁছে যাবে।” – বাংলার কৃষকদের বিশেষ প্রতিশ্রুতি প্রধানমন্ত্রীর

“দুর্গাপুজোর আগেই সব কৃষকদের অ্যাকাউন্টে টাকা পৌঁছে যাবে।” – বাংলার কৃষকদের বিশেষ প্রতিশ্রুতি প্রধানমন্ত্রীর



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – আজ হরিপালের সভা থেকে বাংলার কৃষকদের জন্য বিশেষ প্রতিশ্রুতি দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রী জানালেন, দুর্গাপুজোর আগেই সমস্ত কৃষকদের একাউন্টে অর্থ সাহায্য পৌঁছে দেয়া হবে। ১০ বছরে যা হওয়ার, তা হয়ে গেছে। কিন্তু, এবার সুযোগ এসেছে বাংলার সেবা করার। যেখানে ভোট হয়ে গেছে, সেখানে কৃষকদের তালিকা তৈরি করে ফেলার নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি জানালেন, বিজেপি ক্ষমতায় এলে প্রথমেই কৃষকদের স্বার্থে বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকেই কিষান সম্মান নিধি কার্যকরী করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। বাংলায় বিজেপি সরকারের শপথ গ্রহণের সময় তিনি আসবেন। বাংলার নতুন মুখ্যমন্ত্রীকে তিনি বলবেন যে, দিল্লি থেকে কৃষকদের জন্য দ্রুত টাকা আনতে। প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকেই এর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রধানমন্ত্রী জানালেন, আগামী ২ রা মে বাংলায় শুধু ডবল ইঞ্জিন সরকারই তৈরি হবে না, ডবল বেনিফিট সরকারও তৈরি হবে। তিনি জানালেন, যিনি নতুন মুখ্যমন্ত্রী হবেন, তাঁকে তিনি বলবেন যে, দিল্লি থেকে তিনি অর্থসাহায্য পাঠাবেন, প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকে বাংলার সমস্ত কৃষকদের একাউন্টে ১৮০০০ টাকা পাঠিয়ে দিতে। দুর্গ পুজোর আগেই কৃষকদের একাউন্টে সরাসরি এই টাকা চলে যাবে। ১০ বছর সরকার ঘুমিয়ে পড়েছিল। সমস্ত সরকারি মেশিন ঘুমিয়ে পড়েছে। নতুন সরকার আসার পর সমস্ত সরকারি মেশিন সক্রিয় করতে সময় লাগবে।

প্রধানমন্ত্রী জানালেন কৃষক ভাই-বোনেদের কাছে তিনি অনুরোধ করছেন যে, ১০ বছরে যা ধ্বংস হওয়ার তা হয়ে গেছে, কৃষকদের সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে। এবার তার জবাব দেওয়ার সময় এসে পড়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, প্রতিবছর ঘূর্ণিঝড়ের জন্য বহু মানুষের ক্ষতি হয়। কারোর বাড়ি ভেঙে যায়। তখন এই গরীব সাধারন মানুষকে সরকারি টাকা দেওয়ার বদলে কাটমানি খায় তৃণমূল নেতারা।

গরিব মানুষের দুর্দিন, তৃণমূল নেতাদের কাছে সুদিন। আবার, তারকেশ্বরের পুণ্যার্থীদের জন্য বিশেষ সুবিধার কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী জানান, হুগলি নদীর সংস্কারের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি জানালেন, বাংলার মানুষই মসনদে বসিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আর তাদেরকেই গালি দিচ্ছেন তিনি।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!