এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > দলের নেতাদের ওপর কি আর ভরসা নেই, মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে উঠছে প্রশ্ন

দলের নেতাদের ওপর কি আর ভরসা নেই, মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে উঠছে প্রশ্ন



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বেশ কিছুদিন আগেই বিভিন্ন জেলার পর্যবেক্ষক পদ তুলে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু এবার বাঁকুড়ার দলীয় সভায় থেকে প্রতিটি জেলায় তিনি পর্যবেক্ষক বলে জানিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে ক্রমাগত চাপ বাড়ছে তৃণমূল কংগ্রেসের ওপর। বিভিন্ন জেলায় পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব পালন করা শুভেন্দু অধিকারী এখন দলের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করতে শুরু করেছেন।

মনে করা হচ্ছে, তিনি দলত্যাগের মত সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। আর শুভেন্দু অধিকারী যদি সেই সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে তার পথ অনুসরণ করে তৃণমূলের ব্যাপক জনপ্রতিনিধি দলত্যাগ করবেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আর এই পরিস্থিতিতে এবার বাঁকুড়ার সভা থেকে নরমে গরমে বক্তব্য রাখতে দেখা গেল তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যেখানে দলীয় কর্মীদের উজ্জীবিত করার পাশাপাশি বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন তিনি। শুধু তাই নয়, যে পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব নিয়ে এত বিতর্ক, সেখানে নিজেকে দলের সামান্য কর্মী হিসেবে তুলে ধরে তিনিই প্রতিটি জায়গায় পর্যবেক্ষক বলে জানিয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, এদিন বাঁকুড়া সভা থেকে বেশকিছু বার্তা দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “আমি একটু ঢিলেমি দিয়েছিলাম এবার দলটা দায়িত্ব নিয়ে দেখব। বাঁকুড়া থেকে সেই কাজটা করব। মনে রাখবেন, আপনার ইন্দাস, তালডাংরা, সোনামুখী, ছাতনা প্রভৃতি সব জায়গাতে আমি অবজারভার থাকবো দলের একজন কর্মী হিসেব।”  আর এখানেই একাংশ বলছেন, তাহলে কি বিভিন্ন জায়গায় যে সমস্ত দলের নেতারা রয়েছেন, তাদের উপর ভরসা করতে পারছেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!

আর তাই বিধানসভা নির্বাচনের আগে তিনি সমস্ত জায়গা দেখভাল করবেন বলে সকলকে জানিয়ে দেবেন। অর্থাৎ তিনি বুঝিয়ে দিলেন যে, বিভিন্ন জায়গায় দল ঠিকমতো পরিচালনা হচ্ছে না। আর তাই তিনি এখন থেকে দায়িত্ব নিয়ে সেই সমস্ত জায়গা গুলো পরিচালনা করবেন বলে দাবি করছেন একাংশ। কেননা ইতিমধ্যেই বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূলে ভাঙ্গন ধরবে বলে দাবি করা হচ্ছে। আর তার মধ্যেই দলের নেতাকর্মীদের ওপর ভরসা না রেখে বাঁকুড়ার সভা থেকে তিনি এখন সমস্ত কিছু দেখবেন বলে জানিয়ে দিলেন তৃণমূল নেত্রী বলে দাবি একাংশের।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অনেকে বলতে শুরু করেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে একদিকে যেমন বিরোধীদের ঘুম ওড়ানোর চেষ্টা করছেন, ঠিক তেমনই বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন দলের শৃঙ্খলা রক্ষায় এবং সংগঠন রক্ষায় তিনিই এখন থেকে শেষ কথা বলবেন। কেননা দিনকে দিন যেভাবে বিজেপির উত্থান রাজ্যে বাড়তে শুরু করেছে, তাতে অস্বস্তি বাড়ছে ঘাসফুল শিবিরের।

তাই এই পরিস্থিতিতে একদিকে সংগঠনকে চাঙ্গা করা এবং অন্যদিকে নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত করার মধ্যে দিয়ে এই বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বার্তা দিয়ে একদিকে পরিষ্কার করে দিলেন যে, দলের কারোর উপর সেভাবে তিনি আর ভরসা রাখতে পারছেন না। তাই এখন থেকেই সমস্ত জায়গায় তিনি পর্যবেক্ষক বলে দলের সকলকে কার্যত সতর্ক করে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তৃণমূল নেত্রী বলে দাবি রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!