এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > দলের গোষ্ঠীকোন্দলের জেরে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী, কি বক্তব্য মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের?

দলের গোষ্ঠীকোন্দলের জেরে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী, কি বক্তব্য মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জয়লাভের পরও গোষ্ঠী কোন্দল কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের কাছে। একাধিক স্থানে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের খবর বারবার প্রকাশ্যে চলে আসছে। গোষ্ঠী কোন্দল দূর করে ঐক্যবদ্ধ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে, এরপরেও যাচ্ছে না কোন্দল। দলের গোষ্ঠীকোন্দলের অভিযোগ শোনা যাচ্ছে নানা স্থান থেকে। সম্প্রতি কোচবিহার জেলার দিনহাটাতে গোষ্ঠীকোন্দলে গুলিবদ্ধ হয়েছেন তৃণমূল কর্মী সায়েদ হোসেন। এ প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখলেন তৃণমূলের মহাসচিব ও রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

গত সোমবার রাতে কোচবিহার জেলার দিনহাটাতে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে চলে আসে। গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে গুলিবিদ্ধ হন তৃণমূল কর্মী সায়েদ হোসেন। তাঁর পায়ে গুলি লেগেছে বলে জানা যায় তৃণমূল সূত্রে। অভিযোগ করা হয়েছে, দলের অপর এক গোষ্ঠীর লোকেরাই তাঁকে আক্রমণ করেছিলেন। এভাবে দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসায়, যথেষ্ট অস্বস্তি বেড়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের। শুধু দিনহাটায় নয় একাধিক স্থানে থেকে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের খবর বারবার সামনে আসতে শুরু করেছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এই পরিস্থিতিতে বক্তব্য রাখলেন তৃণমূলের মহাসচিব তথা রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানালেন, দল বড় হচ্ছে। বড় দলকে পরিচালনা করা খুব একটা সহজ নয়। ছোট ছোট এরকম ঘটনা ঘটতেই পারে। বড়দলকে পরিচালনা করা কঠিন হলেও, তাঁরা কঠিন কাজ করতে পারেন। কারন কঠিন কাজ পরিচালনা করার মত শক্তি আছে তাঁদের কাছে। তাঁদের নেত্রী হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানালেন, কোথাও কোথাও কিছু ঘটতেই পারে, তবে এটা নিয়ে চিন্তার কোনো ব্যাপার নেই। তাঁরা সমস্ত কঠিন সময় পার করে এই জায়গায় এসে পৌঁছেছেন। তাঁরা জানেন, কিভাবে মিলেমিশে দলকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।

অন্যদিকে, গতকাল রাতে হাবরার ঘোষপাড়ায় অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন তৃণমূল নেতা রাজীব বিশ্বাস। জানা যায়, গতকাল রাতে একটি বৈঠক চলাকালে তাঁর একটি ফোন আসে। নেটওয়ার্কের সমস্যার কারণে ফোনে কথা বলতে বাইরে বেরিয়ে ছিলেন তিনি। সেসময় তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। তবে, গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হবার কারণে কোনক্রমে বেঁচে গেছেন তিনি। এই ঘটনায় কে বা কারা জড়িত? তা এখনো জানা যায়নি। অভিযোগ দায়ের করা হলেও এখনো পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!