এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > দলেরই একাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনলেন বিজেপি নেত্রী! শোরগোল বাংলায়

দলেরই একাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনলেন বিজেপি নেত্রী! শোরগোল বাংলায়



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  রাজ্য জুড়ে প্রায় আইনশৃঙ্খলা থেকে শুরু করে নারী নির্যাতন, বিভিন্ন বিষয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলতে দেখা যায় ভারতীয় জনতা পার্টিকে। বিজেপির বিরুদ্ধে তোলা এই অভিযোগে অস্বস্তিতে পড়ে শাসক দল। কিন্তু এবার বিজেপির অন্দরে এক মহিলা কর্মীর অভিযোগের ভিত্তিতে চরম অসুবিধায় পড়ল ভারতীয় জনতা পার্টি। জানা গেছে, কল্যাণী পৌরসভার 10 নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা এক মহিলা গত লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই বিজেপিতে সক্রিয়ভাবে রয়েছেন।

আর সেই সময় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কল্যানীর সভাপতি অভিরুপ বিশ্বাসের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। অভিযোগ, এরপর থেকেই মহিলাকে কুপ্রস্তাব দিতে শুরু করেন সেই নেতা। এমনকি মাঝে সেই মহিলার বাড়িতেও চলে আসেন তিনি। যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখন তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে বিজেপির অন্দরমহলে।

বিজেপির এক মহিলা কর্মী যেভাবে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের এক নেতা এবং কল্যাণীতে বিজেপির যুব মোর্চার সভাপতি শ্রীনিবাস মণ্ডলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন, তাতে গেরুয়া শিবির এখন কিভাবে পরিস্থিতিকে নিজেদের আয়ত্তে আনে, তা অবশ্যই দেখার বিষয়। বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, যেভাবে এই দুই বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে দলেরই এক মহিলা কর্মীকে হেনস্থার অভিযোগ উঠল, তাতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে এখন গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে নতুন রাজনৈতিক অস্ত্র ব্যবহার করা হতে পারে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

যার প্রভাব পড়তে পারে আগামী দিনের নির্বাচনে। যে বিজেপি নিজেদের শৃংখলাবদ্ধ দলবদলের বড়াই করে, তাদের বিরুদ্ধে যদি এই রকম অভিযোগ উঠতে শুরু করে, তাহলে তারা যে আগামী দিনে ব্যাপক সমস্যায় পড়বে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। যদিও বা শ্রীনিবাস মন্ডল এবং অভিরূপ বিশ্বাস দুজনেই তাদের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাদের বক্তব্য, পুলিশ তদন্ত করে দেখুক। তারা এই ঘটনার সঙ্গে কোনোভাবেই জড়িত নয়।

সব মিলিয়ে এবার বিজেপির এক নেত্রী যেভাবে দলের দুই নেতার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুললেন, তাতে গেরুয়া শিবির কতটা বিপাকে পড়ে এবং এর পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির পক্ষ থেকে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয় কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!