এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > দ্বিতীয় দফায় টানা ৯০ মিনিট আলোচনাতেও মিলল না রফাসূত্র, শুভেন্দু তৃণমূল সম্পর্কের ভবিষ্যত এখন অনিশ্চিতের খাতায়

দ্বিতীয় দফায় টানা ৯০ মিনিট আলোচনাতেও মিলল না রফাসূত্র, শুভেন্দু তৃণমূল সম্পর্কের ভবিষ্যত এখন অনিশ্চিতের খাতায়



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে জল্পনা ক্রমশ বাড়ছে। দীর্ঘদিন ধরে দল এবং সরকারের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করেছেন তিনি। বিভিন্ন অরাজনৈতিক সভাতে তার বক্তব্য ইঙ্গিতবাহী বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। আর এই পরিস্থিতিতে সেই শুভেন্দুবাবুর মান ভাঙানোর জন্য উদ্যত হন তৃণমূলের প্রবীণ সাংসদ সৌগত রায়। সোমবার তাদের মধ্যে দ্বিতীয় দফার আলোচনা হবে বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে ছিল।

আশা করা হয়েছিল, সৌগতবাবুর মত প্রবীণ তৃণমূল সাংসদ হয়ত বা বরফ গলাতে সক্ষম হবেন। কিন্তু শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দ্বিতীয় দফায় টানা 90 মিনিট আলোচনাতেও কোনো রফাসূত্র বের হতে দেখা গেল না। স্বাভাবিকভাবেই শুভেন্দু অধিকারীকে দলে সক্রিয় করবার জন্য তৃণমূলের সৌগতবাবু উদ্যত হলেওড় যেভাবে আলোচনা সম্পর্কে কোনো রকম সবুজ সংকেত পাওয়া গেল না, তাতে চিন্তা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে।

এদিন এই প্রসঙ্গে শুভেন্দুবাবুর ঘনিষ্ঠ এক তৃণমূল নেতা বলেন, “একদিকে সৌগতদা আলোচনা করছেন। অন্যদিকে দলনেত্রী সেই কল্যানদাকে নিয়ে জেলা সফরে গিয়েছেন। তিনি শুভেন্দুকে লাগাতার আক্রমণ করছেন। এর ফলে কি বার্তা যাচ্ছে! যেদিন আলোচনা হওয়ার কথা, সেই দিনই তো এই দৃশ্য দেখা যাচ্ছে।” বস্তুত, শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যখন দলের দূরত্ব তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে উঠেছিল, তখন তাকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

নাম না করে শুভেন্দু অধিকারীকে কটাক্ষ করেছিলেন তিনি। আর এরপরেই শুভেন্দুবাবুর অনুগামীরা ব্যাপকভাবে ক্ষুব্ধ ছিলেন। এমনকি সেই হুগলিতে গিয়ে নাম না করে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাল্টা কটাক্ষ করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। আর এই পরিস্থিতিতে সেই শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে এদিন বাঁকুড়া সফরে বিভিন্ন কর্মসূচি করতে দেখা গেল স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যার ফলে দূরত্ব আরো বৃদ্ধি পেল আর এই পরিস্থিতিতে সৌগত রায় শুভেন্দু অধিকারীর মান ভাঙানোর চেষ্টা করলেও কল্যান বন্দোপাধ্যায়কে নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সফরে আদৌ সেই আলোচনা ফলপ্রসূ হবে কিনা, তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় রয়েছে।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বলা বাহুল্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর তৃণমূল কংগ্রেসের যদি কারও জনপ্রিয়তা সবথেকে বেশি থেকে থাকে, তাহলে তার নাম শুভেন্দু অধিকারী। সেদিক থেকে শুভেন্দুবাবু দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে যদি আগের মত কোনো সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে তৃণমূল কংগ্রেস যে ব্যাপক চাপে পড়বে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর এই পরিস্থিতিতে ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে তৃণমূলের পক্ষ থেকে সৌগত রায় সেই শুভেন্দু অধিকারীর মান ভাঙানোর চেষ্টা করেছিলেন।

সোমবার এই ব্যাপারে একপ্রস্থ বৈঠক হয়। কিন্তু সেই বৈঠক থেকেও কোনো রফাসূত্র না বেরোনোয় চিন্তা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। অনেকে বলছেন, পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল থেকে জটিলতর হতে শুরু করেছে। যদি অচিরেই শুভেন্দু অধিকারীর মান ভাঙানো না হয়, তাহলে তিনি বড় কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে নিতে পারেন। তবে এখনও পর্যন্ত সোমবারের আলোচনায় উঠে এসেছে, তা কোনো পক্ষই খোলসা করেননি। সব মিলিয়ে এবার শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে আবার আলোচনায় বসে তৃণমূল, নাকি সৃষ্টি হয় নতুন কোনো সমীকরণের, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!