এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দলবদলুদের নিয়ে মমতা ব্যানার্জি-দিলীপ ঘোষকে একযোগে সতর্ক করলেন হেভিওয়েট বামনেতা

দলবদলুদের নিয়ে মমতা ব্যানার্জি-দিলীপ ঘোষকে একযোগে সতর্ক করলেন হেভিওয়েট বামনেতা



রাজ্যে বামেদের সংগঠন এখন প্রায় তলানিতে ঠেকেছে। শরিক ফরওয়ার্ড ব্লকের দাপট উত্তরবঙ্গের দিনহাটা, মেখলিগঞ্জের মত এলাকাতে থাকলেও সম্প্রতি সেখানকারই ফব নেতা তথা বিগত বাম সরকারের মন্ত্রী পরেশ অধিকারীর তৃনমূলে যোগদান আরও ফাটল ধরিয়েছে। যা নিয়ে অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে ফরওয়ার্ড ব্লককে।

এবার সেই নিজেদের অস্বস্তি ঢাকতে সোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ফরওয়ার্ড ব্লকের কেন্দ্রীয় কমিটির  সম্পাদক দেবব্রত বিশ্বাসের মন্তব্যে তৈরি হয়েছে তীব্র বিতর্ক। সূত্রের খবর, রাজ্যে এই দলবদল নিয়ে তৃনমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকে উদ্দেশ্য করে তাঁর ফেসবুক স্ট্যাটাসে এই দেবব্রত বিশ্বাস লেখেন, “যাঁরা দলবদল করছেন, তাঁরা বিশ্বাসযোগ্য নন। তাঁরা শুধুই ক্ষমতা দেখেছেন। লড়াই দেখেননি। বামেরা পাঁচ বছরে ফিরে আসবে এই আশা ম্লান হতেই তাঁরা দলবদল করছেন।”

এদিকে দেবব্রত বিশ্বাসের এহেন মন্তব্যে তাঁর সমালোচনায় মুখর হয়েছেন প্রয়াত ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা এবং প্রাক্তন বিধায়ক দীপক সেনগুপ্তের ছেলে এবং বর্তমানে বিজেপি নেতা দীপ্তিমান সেনগুপ্ত। তিনি বলেন, “ইতিহাস বিকৃত করেছেন দেবব্রতবাবু। এইরকম পোষ্ট করে ওনারা দীপকবাবুর মত নেতাকেও অসম্মান করেছেন।”  

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রব্লেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

মাঠে নেমেছে তৃনমূলও। এদিন দেবব্রত বিশ্বাসের এই পোষ্ট সম্পর্কে সদ্য ফরওয়ার্ড ব্লক ছেড়ে তৃনমূলে যোগ দেওয়া পরেশ অধিকারী বলেন, “এগুলো গুরুত্ব দেওয়ার কোনো মানেই নেই। কারা কী করেছে তা সবাই জানে।” এদিকে তাঁর ফেসবুক পেজে দিলেও লেখাটি যে তাঁর নয় সেই ব্যাপারে এদিন স্পষ্ট জানান ফরওয়ার্ড ব্লকের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক দেবব্রত বিশ্বাস। তাঁর দাবি, এই লেখাটি দলেরই তরুন নেতা সুদীপ ভট্টাচার্যের। তবে লেখাটি তিনি না লিখলেও তাতে যে তাঁর সমর্থন রয়েছেন এদিন তাও স্পষ্ট করেছেন এই বাম নেতা। সব মিলিয়ে দলবদলে বিস্ফোরোক ফরওয়ার্ড ব্লকের দেবব্রত বিশ্বাস।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!