এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দিলীপ ঘোষের নামকরণ করলেন শুভেন্দু, জেনে নিন

দিলীপ ঘোষের নামকরণ করলেন শুভেন্দু, জেনে নিন



 

রাজ্য রাজনীতিতে তৃণমূল বনাম বিজেপির মধ্যেকার দ্বৈরথ কারোরই অজানা নয়। তবে তৃণমূল বনাম বিজেপির লড়াইয়ের থেকেও, বিজেপির দিলীপ ঘোষের সঙ্গে তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারীর লড়াই বেশ জমজমাটি। লোকসভা নির্বাচনের পর বিজেপি বাংলায় কিছুটা শক্তিশালী হলেও, সেই বিজেপিকে কুপোকাত করতে একাধিক জায়গায় দায়িত্ব শুভেন্দু অধিকারীকে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যার মধ্যে অন্যতম ছিল দিলীপ ঘোষের বলে পরিচিত খড়গপুর। আর খড়্গপুরে মাঝেমধ্যেই গিয়ে রাজনৈতিক কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বিজেপিকে উৎখাত করার চেষ্টা করেছিলেন তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারী। এমনকি সদ্যসমাপ্ত খড়গপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে সেই দিলীপ ঘোষের অস্বস্তি বাড়িয়ে সেখানে তৃণমূল প্রার্থী প্রদীপ সরকারের জয় নিশ্চিত করেন সেনাপতি শুভেন্দু অধিকারী। এদিকে নিজেদের দখলে থাকা কেন্দ্র হেরে যাওয়ায় রীতিমতো হতাশা সৃষ্টি হয়েছিল ভারতীয় জনতা পার্টির মধ্যে।

আর এই পরিস্থিতিতে দিলীপ ঘোষের নতুন নামকরণ করলেন রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। বস্তুত, কিছুদিন আগেই কাঁথিতে একটি মিছিল করেছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মঙ্গলবার সেই মিছিলেরই পাল্টা মিছিল করেন তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারী। আর সেই মিছিলের পরই বক্তব্য রাখতে গিয়ে দিলীপ ঘোষকে “হারাধন ঘোষ” বলে অভিহিত করেন এই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “কোনো সময় দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, নিজের জেলা সামলাতে পারে না, তো কোনো সময় বলেছিলেন মাফিয়া শুভেন্দু। পরে বলেছিলেন স্ট্রেচারে চেপে ফিরবেন। কিন্তু এখন দেখছি দিলীপ ঘোষ হারাধন ঘোষ হয়ে গিয়েছেন।” আর শুভেন্দু অধিকারীর এহেন কথা থেকেই স্পষ্ট যে, তিনি খড়্গপুরে বিজেপির হেরে যাওয়ার ঘটনাকে তুলে ধরেই দিলীপ ঘোষকে হারাধন ঘোষ বলে অভিহিত করলেন।

এদিন কাঁথি পৌরসভা নিয়েও আগাম ভবিষ্যৎবাণী জানিয়ে দেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, “আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে কাঁথি বিরোধীশূন্য হবে। 21 টি আসনের মধ্যে সব কটাতেই তৃণমূল জয়ী হবে। এখানে আমরা যাকে ভোট দিতে বলব, মানুষ তাকেই ভোট দেবেন।”

অন্যদিকে এদিনের এই সভা থেকে সিপিএমকেও কটাক্ষ করেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী। তিনি বলেন, “লোকসভায় বিজেপি 300 র আসন বেশি পেয়েছে বলে মনে করছে, যা ইচ্ছে তাই করবে। যেমনটি বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য 2006 এর নির্বাচনের পর বলেছিলেন, আমরা 235 ওরা 30। এখন সিপিএমের অবস্থা কি হয়েছে, সবাই দেখতে পাচ্ছেন।”

তবে শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিকে একতরফা আক্রমণ করলে পাল্টা তৃণমূলের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তাদের দাবি, মানুষের টাকা চুরি করে তৃণমূল এখন বড়লোক হয়েছে। তবে এদিন শুভেন্দু অধিকারী যেভাবে দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করলেন, তাতে গোটা পরিস্থিতি ঠিক কোন পর্যায়ে পৌঁছয়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!