এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কয়লার অবৈধ কারবারের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী নাম জড়ালেন দিলীপ ঘোষ

কয়লার অবৈধ কারবারের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী নাম জড়ালেন দিলীপ ঘোষ

Priyo Bandhu Media


জঙ্গল মহলের সভা থেকে মুকুল রায় তৃনমূলের যুবরাজ অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন কয়লার অবৈধ কারবারের সঙ্গে জড়িত আছেন তিনি। আবারও কার্যত একই সুরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি বলেন, কয়লা, বালি ,পাথর চালানের অবৈধ কারবারের টাকায় তৃনমূল সরকার চলছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এই তোলাবাজি চলছে রাজ্যে ।এই মন্ত্যব্য ঘিরে বিতর্কের তৈরি হয়েছে শাসক শিবিরে।
শনিবার আসানসোলের এক সভা থেকে বিজেপি সভাপতি চরম ভাষায় মুখ্যমন্ত্রীকে নিশানা করেন। সরকারের নানা দুর্নীতির প্রতিবাদ করে তিনি বলেন, তোলাবাজির সরকার বরদাস্ত করা হবে না। পঞ্চায়েত ভোটের আগেই কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন করা হবে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের । তিনি এদিন বিজেপির “সংকল্প যাত্রা”-র প্রসঙ্গ টেনে বলেন, মঞ্চ ভেঙে বিজেপিকে আটকানো যাবেনা। যেখানে হাইকোর্টের সম্মতি রয়েছে, সেখানে সংকল্প যাত্রা সফল হবেই। দেখি কতগুলি মঞ্চ ভাঙতে পারে সরকার। দরকার পড়লে মাইক, ডায়াস ছাড়াই সভা করবে বিজেপি। মুখ্যমন্ত্রী প্রশাসন কে হাত করে সবার জায়গা না দিলে রেল কর্তৃপক্ষের কাছে জায়গার জন্য আবেদন করা হবে। এই অভিযোগের পরই শাসকদলের তরফে তীব্র প্রতিক্রিয়া ধরা পড়েছে। তৃনমূলের একাংশের দাবি, যথার্থ তথ্য- প্রমাণসহ বিজেপির এই মন্ত্যব্য আইনসম্মত নয়। শুধুমাত্র আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে সাধারণ মানুষের কাছে মুখ্যমন্ত্রীর ভাবমূর্তি নষ্টের প্রচেষ্টা করছে বিজেপি। তারা পাল্টা প্রশ্ন করেন, বিজেপির বাংলার প্রতি অসহিষ্ণুতা চিরকালের। তার প্রমান আবার দিল কেন্দ্র। ৮টি লাইনের ট্রেন রুট বন্ধ করার কথা ঘোষণা করে। তৃনমূল তা কখনোই সমর্থন করবেনা। ভবিষ্যতে প্রতিবাদ সভা করা হবে। এই প্রসঙ্গে দিলীপ বাবুর সাফাই, কেন্দ্রকে দোষ না দিয়ে , এই ৮টি রুটে রেলের ব্যাপক ক্ষতির কারণ খুঁজে বের করাই এখন প্রধান কাজ হওয়া উচিত।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!