এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > তৃণমূলের শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির প্রমান আছে, দাবী দিলীপ ঘোষের

তৃণমূলের শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির প্রমান আছে, দাবী দিলীপ ঘোষের

Priyo Bandhu Media


গত শুক্রবার প্রথমবারের জন্য বিজেপির প্রকাশ্য সমাবেশ থেকে নিজের বক্তব্য রাখেন তৃণমূল ত্যাগী নেতা মুকুল রায়। আর প্রথমবারেই তিনি তাঁর আক্রমনের তীর রাখেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ডায়মন্ড-হারবারের মাননীয় সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেসের মাননীয় মহাসচিব ও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দিকে। ওই সভার পর শনিবারই দু-দিনের সফরে উত্তরবঙ্গে গিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এক সর্বভারতীয় মিডিয়ার বাংলা সংস্করণে দাবী করা হয়েছে সেখানে যেমন দিলীপবাবু সেদিনকার মুকুলবাবুর করা অভিযোগের দায় তাঁর নিজের বা বিজেপির ঘাড়ে নেননি, তেমনই প্রকারান্তরে স্বীকার করে নিয়েছেন, মুকুল রায়ের তোলা অভিযোগগুলির জেরে বিজেপি নতুন করে উজ্জীবিত হয়েছে। তার সঙ্গে নিয়ে এসেছেন বেশ কিছু আরো অভিযোগ।
ওই পোর্টালের রিপোর্ট অনুযায়ী দিলীপ বাবু বলেছেন, বিশ্ব বাংলায় সংক্রান্ত যাবতীয় অভিযোগ সবটাই মুকুল রায়ের বিষয়। সেই দায় বিজেপি নেবে না। মুকুলদা অভিযোগ করেছেন তৃণমূল বিরুদ্ধে। এটা তাই মুকুলদা আর তৃণমূলের একান্ত বিষয়। তবে শাসকদলের এক শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির আরও অভিযোগ আমাদের কাছে রয়েছে। সময় হলেই তা প্রকাশ্যে আনা হবে। কিন্তু এখন মুকুল রায় বিশ্ব বাংলা নিয়ে যা বলেছেন, তা মুকুলবাবুরই দায়। কেননা মুকুল রায় দীর্ঘদিন তৃণমূলের সঙ্গে ঘর করেছেন। তিনি আরও ভালো মতো বুঝবেন তৃণমূলের কীর্তিকলাপ। এবার তা একে একে ফাঁস হতে বসেছে। যদিও এই খবরের সত্যতা প্রিয়বন্ধু বাংলার তরফে যাচাই করে দেখা সম্ভব হয় নি, এই প্রবন্ধ সম্পূর্ণরূপে ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবরের পরিপ্রেক্ষিতে করা, কোনো ভাবেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয় বা কোনো ব্যক্তি বা দলের সম্মানহানির উদ্দেশ্যে কোনোমতেই রচিত নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!