এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দ্বিতীয়বার রাজ্য সভাপতি হতেই দিলীপ ঘোষের ‘বিরোধী শিবির’ থেকে সন্ধির ইঙ্গিত? বাড়ছে জল্পনা!

দ্বিতীয়বার রাজ্য সভাপতি হতেই দিলীপ ঘোষের ‘বিরোধী শিবির’ থেকে সন্ধির ইঙ্গিত? বাড়ছে জল্পনা!



সম্প্রতি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে রাজ্য রাজনৈতিক মহলে ধুন্ধুমার পড়ে যায়। দিলীপ ঘোষ রানাঘাটে গিয়ে এনআরসি ও সিএএ নিয়ে এমন একটি মন্তব্য করেন, যেখানে শুধুমাত্র বিরোধী দলের নয়, তাঁর নিজের দলেও চূড়ান্ত সমালোচনা হয় তাঁর। দিলীপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্যের ফলে এর আগেও অনেকবার অস্বস্তির সম্মুখীন হয়েছে বিজেপি শিবির। এবারেও নতুন কিছু হয়নি। রাজ্য বিজেপির সভাপতি ‘গুলি করে মারা’র প্রসঙ্গে দল আরেকবার চরম অস্বস্তির শিকার হলো।

আর এবার রাজ্য বিজেপির সভাপতির বিরুদ্ধে মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু আজ দ্বিতীয় বার রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ পুনঃনির্বাচিত হওয়ায় বাবুল সুপ্রিয় দিলীপ ঘোষের প্রতি তাঁর আক্রমণের ঝাঁজ অনেকটাই কমিয়ে দিলেন।সম্প্রতি রানাঘাট থেকে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেছিলেন, যাঁরা সিএএ র বিরোধিতা করছে এরাজ্যে, তাঁদের গুলি করে মারা উচিত। ক্ষমতায় আসলে তাঁদেরকে গুলি করে মারা হবে। উপরন্তু বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশ, অসম এবং কর্নাটকে হিংসায় জড়িত বিক্ষোভকারীদের কুকুরের মতো মারা হয়েছে।

এই মন্তব্যের পরেই পশ্চিমবঙ্গের সর্বত্র তথা দেশের সর্বত্র নিন্দার ঝড় বইতে থাকে। সেসময় পাল্টা মন্তব্য করে নিজের দল থেকে শোরগোল ফেলেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু এদিন সংঘাত ভুলে বাবুল সুপ্রিয় নব নির্বাচিত রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের প্রশংসা করলেন। তাঁকে শুভেচ্ছা জানালেন। এদিন বাবুল বলেন, রাজনীতি করতে গেলে মতের অমিল থাকতেই পারে। সেটাই বাস্তব। একসঙ্গে চলতে গেলে নানান পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়। কিন্তু প্রত্যেকেই একটা টিম হিসাবে কাজ করে দলে। তাই বিতর্ককে দূরে সরিয়ে রেখে সামনের দিকে তাকিয়ে চলতে হবে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর মন্তব্যের ফলে রাজনৈতিক মহলে জোর গুঞ্জন শুরু হয় বিজেপি দলে তৈরি হওয়া সংঘাত নিয়ে।প্রসঙ্গত, সোমবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় তীব্র প্রতিবাদ করেন। তিনি টুইট করে বলেন, দিলীপ ঘোষ দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য করেছেন। তিনি যা বলেছেন, সেটা সম্পূর্ণ তাঁর নিজের মতামত। দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের দায়ভার দল নেবে না। বাবুল সুপ্রিয় এদিন দিলীপ ঘোষের দ্বিতীয় বার সভাপতি হওয়ার প্রসঙ্গে বলেন, দল যেটা ঠিক মনে করেছে সেটাই করেছে।

উপরন্তু তিনি দিলীপ ঘোষ কে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, দ্বিতীয় বার দলীয় সভাপতি হওয়া নিতান্তই ছোট ব্যাপার নয়। তবে দিলীপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্য ঘিরে এদিনও বাবুল বলেন, “উনি যেটা বলেছিলেন সেটা তাঁর ব্যক্তিগত মত। আমিও যেটা বলেছি সেটাও আমার নিজস্ব মত। একটা মতানৈক্য থাকবে। ওসব পেছনে ফেলে এগিয়ে যাওয়ার দিন।” 2019 এর লোকসভা ভোটে এ রাজ্যের ফলাফল দেখে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব পাখির চোখ করে 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনকে। আর সেই নির্বাচনকে মাথায় রেখেই দ্বিতীয় বার রাজ্য বিজেপি সভাপতি নির্বাচন করা হয়েছে দিলীপ ঘোষকে।

প্রসঙ্গত দিলীপ ঘোষ বরাবরই ঠোঁটকাটা বলে পরিচিত রাজনৈতিক মহলে। তিনি বিতর্কিত মন্তব্য করেই থাকেন। কিন্তু তা সত্বেও তাঁর উপরেই ভরসা রেখেছে অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদী। আর সে কথাই মাথায় নিয়ে দলগত সংঘাতকে দূরে সরিয়ে রেখে বাবুল সুপ্রিয় এ দিন প্রতিবাদের সুর অনেকটাই নরম করে নিলেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আপাতত পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে, সেদিকে নজর রাখবে এ রাজ্যের ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!