এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > এবার দিলীপ ঘোষকে “খ্যাপা ষাঁড়” বলে কটাক্ষ তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার, তীব্র বিতর্ক

এবার দিলীপ ঘোষকে “খ্যাপা ষাঁড়” বলে কটাক্ষ তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার, তীব্র বিতর্ক



বঙ্গ রাজনীতিতে যেন বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিযোগিতার ইঁদুর দৌড় শুরু হয়েছে। কখনও বিজেপির রাজ্য সভাপতি, আবার কখনও বা তৃণমূল বিধায়কের মন্তব্য, পাল্টা মন্তব্যের মাঝেই মধ্যেই চলে আসছে বিতর্কিত মন্তব্য। যা নিঃসন্দেহে রাজনীতিতে শাসক-বিরোধী তরজাকে আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে। বস্তুত, সম্প্রতি নাগরিকত্ব সংশোধনী নিয়ে নানা বিরোধিতার জোরে বিরোধী দল সহ বিভিন্ন বিজেপি বিরোধী ব্যক্তিদের কু-আক্রমণ করতে দেখা গিয়েছিল বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে।

আর এবার এবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে “ক্ষ্যাপা ষাঁড়” বলে আক্রমণ করলেন দিনহাটা তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহ। সূত্রের খবর শনিবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে দিনহাটার পাঁচমাথা মোড়ে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে একটি অবস্থান-বিক্ষোভ সংগঠিত করা হয়।

আর সেখানেই উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন এখানকার তৃণমূল বিধায়ক। তিনি বলেন, “একটা খ্যাপা ষাঁড় রাস্তায় ঘুরলে যেমন বিপদ হতে পারে, দিলীপ ঘোষের মত রাজনৈতিক নেতারাও যদি রাস্তায় ঘোরে, তাহলেও সাধারন মানুষের বিপদ হতে পারে। সেদিকে আমাদের সকলের লক্ষ্য রাখতে হবে।”

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

শুধু তাই নয়, এদিন দিলীপ ঘোষকে কালো কাপড় পরানোরও বন্দোবস্ত করতে হবে বলেও জানিয়ে দেন দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক। আর এখানেই একাংশের প্রশ্ন, তৃণমূলের একজন বিধায়ক হয়ে বিরোধী দলের সর্বোচ্চ সেনাপতিকে কেন খ্যাপা ষাঁড় বলে অভিহিত করলেন উদয়ন গুহ! অনেকে বলছেন, কথায় আছে, তুমি অধম বলিয়া আমি উত্তম হইব না কেন! সেদিক থেকে যদি বিজেপির রাজ্য সভাপতি যদি বিতর্কিত মন্তব্য করেন, তাহলে কেন তাকে আক্রমণ করতে গিয়ে পাল্টা ক্যু মন্তব্য করতে হবে তৃণমূলের বিধায়ককে! এতে কি বঙ্গ রাজনীতিতে সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে না!

জানা গেছে, এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে “খ্যাপা ষাঁড়” বলা নিয়ে পাল্টা তাকে আক্রমণ করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে কোচবিহার জেলা বিজেপির সভানেত্রী মালতী রাভা রায় বলেন, “ওই তৃণমূল নেতার তো নিজের চরিত্রের ঠিক নেই। নিজের ঘর গোছাতে ফরওয়ার্ড ব্লক ছেড়ে উনি তৃণমূলে গিয়েছেন। তৃণমূল ছেড়ে অন্য দলে যাওয়ার জন্য পা বাড়িয়ে রেখেছেন। ওর মুখে তো এমন অমানুষের মত কথা বেরোবেই। এবারের ভোটে মানুষ ওনাকে দিনহাটা থেকে ছুঁড়ে ফেলবে। সেটা বুঝেই এখন এমন উল্টোপাল্টা কথা বলছেন।”

সব মিলিয়ে এবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে বিরোধিতা এবং স্বপক্ষে থেকে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে যেভাবে কুকথার প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে, তা দেখে রীতিমত হতবাক বাংলার জনসাধারণ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!