এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > উত্তরবঙ্গ সফরের আগে দিলীপ ঘোষের কপালে বড়সড় চিন্তার ভাঁজ,দল ছাড়লেন একাধিক

উত্তরবঙ্গ সফরের আগে দিলীপ ঘোষের কপালে বড়সড় চিন্তার ভাঁজ,দল ছাড়লেন একাধিক



 

লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে বিজেপি ব্যাপক জনসমর্থন পেয়েছিল। আর এই সমর্থন পাওয়ার পরেই তারা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল যে, এবার হয়ত উত্তরবঙ্গ তাদের দখলে চলে এসেছে। কিন্তু যত দিন গিয়েছে, ততই পরিস্থিতি ঘোরালো হয়ে উঠতে শুরু করেছে। কিছুদিন আগেই উত্তরবঙ্গের কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে পরাজিত হতে হয়েছে বিজেপি প্রার্থীকে। আর তারপরেই উত্তরবঙ্গে তাদের জনসমর্থন কমছে বলে আশঙ্কা করেছিল ভারতীয় জনতা পার্টি।

আর এই পরিস্থিতিতে বিধানসভা নির্বাচন এবং পৌরসভা নির্বাচনের আগে উত্তরবঙ্গের গতিকে আরও বাড়াতে, সেই উত্তরবঙ্গে পা রাখার পরিকল্পনা করেছেন দিলীপ ঘোষ। টানা আটদিনের কর্মসূচি নিয়ে উত্তরবঙ্গের প্রতিটি জেলায় দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করার পরিকল্পনা রয়েছে দীলিপবাবুর। তবে দিলীপ ঘোষ উত্তরবঙ্গে আসার আগেই তার চিন্তা বাড়িয়ে দিল তৃণমূল কংগ্রেস।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়ির ক্রান্তিতে প্রায় 400 জন বিজেপি কর্মী বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করবেন। আর দিলীপ ঘোষের জলপাইগুড়ি সফরের আগে তৃণমূলের দ্বারা বিজেপির এই ভাঙ্গন গেরুয়া শিবিরের কাছে যে অত্যন্ত আশঙ্কার কারণ, তা বুঝতে বাকি নেই কারোরই। এদিন এই ব্যাপারে জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের সভাপতি কিষাণ কুমার কল্যাণী বলেন, “নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যুতে সাধারণ মানুষ বিজেপির ওপর ক্ষুব্ধ। তাই তাদের দলের পুরোনো কর্মীরা বিজেপি ছেড়ে আমাদের দলে যোগ দিচ্ছেন। বৃহস্পতিবার 400 জন কর্মী তৃণমূলে যোগ দেবেন।”


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে গোটা বিষয়ে তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানিয়েছেন জলপাইগুড়ি জেলা বিজেপি সভাপতি বাপি গোস্বামী। কিন্তু বাপীবাবু যে কথাই বলুন না কেন, দিলীপ ঘোষের উত্তরবঙ্গ সফরের আগে যেভাবে বিপুল বিজেপি নেতা, কর্মী তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন, তাতে বিজেপির উৎকণ্ঠা বহুগুণে বৃদ্ধি পেল বলে মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের। কিন্তু কেন তারা হঠাৎ বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন!

এদিন এই প্রসঙ্গে দলত্যাগী বিজেপি কর্মী বৈদ্য তেলি বলেন, “চ্যাংমারী মণ্ডল কমিটির সদস্য ছিলাম। লড়াই-সংগ্রাম করে বিজেপি করেছি। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের সাফল্য আসার পরেই আমাদের দলে কোনো গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না। এনআরসি নিয়ে মানুষের বিরুদ্ধে বিজেপি সরকার পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। তাই আমরা তৃণমূলে যোগ দিচ্ছি। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূলের পতাকা হাতে তুলে নেব।” আর বিপুলসংখ্যক বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ উত্তরবঙ্গে পা রাখায় তার পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক কী হয়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!