এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দেশি গরুর দুধে সোনা বিতর্কে ফের ঘি ঢাললেন দিলীপ ঘোষ

দেশি গরুর দুধে সোনা বিতর্কে ফের ঘি ঢাললেন দিলীপ ঘোষ



রাজনীতিতে পা দিয়ে হিন্দুত্ববাদের প্রচার চালাতে গিয়ে দেশের বিজেপি নেতারা প্রায়শই বেফাঁস মন্তব্য করে ফেলেন‌। আজকের যুগে দাঁড়িয়ে যে কথাগুলিকে বড়ই বেমানান লাগে। উপরন্তু এই কথাগুলি বলার জন্য বিজেপি নেতারা হাসির খোরাক হন। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়াতে। বিজেপি নেতাদের কথা নিয়ে বিভিন্ন ট্রল হতেও দেখা যায়। এখনো পর্যন্ত বেফাঁস কথার তালিকায় নাম উঠেছে বিজেপির অনেক হেভিওয়েট নেতার। তবে সম্প্রতি এই তালিকায় নাম তুলেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ গরু সংক্রান্ত মন্তব্যটি জন্য।

সম্প্রতি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বর্ধমানের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে মন্তব্য করেছিলেন গরুর পিঠে খুঁজে একটি স্বর্ণনাড়ি আছে। তার জন্যই গরুর দুধ সোনালী হয়। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় দিলীপ ঘোষকে নিয়ে নানান মিম তৈরি হতে দেখা যায়। অনেকেই মন্তব্য করেন, গরু নিয়ে এবার গোল্ড লোন নেবেন। তবে এসব মন্তব্যগুলি বিরুদ্ধে দিলীপ ঘোষ আবারও একটি বেফাঁস মন্তব্য করলেন।

দিলীপ ঘোষের গরু সংক্রান্ত মন্তব্যের বিরুদ্ধে যারা কথা বলেছেন, তাদেরকে কার্যত গাধা বলে সম্মোধন করলেন দিলীপ ঘোষ। দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেছেন, যারা তাঁর কথাকে গুরুত্ব না দিয়ে নানান মজা করে যাচ্ছেন, তাঁরা গরুর চেয়েও কম বোঝেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি এখানেই থেমে যাননি। বিজেপির রাজ্য সভাপতি জানিয়েছেন, গাধা যেমন গরু সম্পর্কে কিছু জানেনা, ঠিক তেমনি অনেকেই গরু নিয়ে কিছু বোঝেনা। সূত্রের খবর, দিলীপ ঘোষ রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেছেন গরুর দুধে সোনা আছে। এই মন্তব্যটি করে তিনি যদি ভুল কিছু বলে থাকেন, তাহলে তা প্রমাণ করে দেখানো হোক। একইসঙ্গে তিনি নিজে জানিয়েছেন, তিনি প্রতিদিন গরুর দুধ গ্রহণ করেন।

গরুর দুধ নিয়ে যে মন্তব্যটি দিলীপ ঘোষ করেছিলেন, তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা মিম ছড়িয়ে পড়ে। বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারাও মন্তব্যটি নিয়ে মজা করেন। তবে এতদিন পর্যন্ত দিলীপ ঘোষ চুপ ছিলেন। কিন্তু এদিন আর থাকতে না পেরে কটাক্ষ করে বসেন। দিলীপ ঘোষ বলেন, কিছু লোককে কেউ গুরুত্ব দেয় না ফলে তাঁরা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপ্লব করেন।

তবে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, যেহেতু বিজেপি একটি সর্বভারতীয় দল এবং তাঁদের নেতারা যথেষ্ট পরিচিত মুখ সারাদেশে, তাই তাঁদের নিজেদের মন্তব্যের খেয়াল রাখা উচিত। যেকোন জায়গায় বেফাঁস মন্তব্য করলে তাতে দলের ওপর প্রভাব পড়বে বলেই মনে করছেন তাঁরা। আপাতত দিলীপ ঘোষের মন্তব্য ঘিরে রাজনৈতিক মহলে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

উপরন্তু দিলীপ ঘোষ এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে সেই সমালোচনা আরো উসকে দিলেন বলে মনে করছেন অনেকেই। অবশ্য দিলীপ ঘোষের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এখনো পর্যন্ত কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব থেকে কোন রকম মন্তব্য করা হয়নি‌। তবে দিলীপ ঘোষ যে তার বেফাঁস মন্তব্য নিয়ে কোনোরকম চিন্তিত নন তা দ্বিতীয়বারের মন্তব্যে যথেষ্ট পরিষ্কার হয়ে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!