এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সরকারি ইমেলের মত আইডি বানিয়ে সাধারনের অ্যাকাউন্ট সাফ করার তালে হ্যাকাররা! সাবধান করল ব্যাঙ্ক

সরকারি ইমেলের মত আইডি বানিয়ে সাধারনের অ্যাকাউন্ট সাফ করার তালে হ্যাকাররা! সাবধান করল ব্যাঙ্ক



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট মারণ ভাইরাস করোনার ভয়াবহতা কমার বদলে দিন দিন বেড়েই চলেছে। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে করোনা সংক্রমণ নিত্যদিন বেড়ে চলেছে। অন্যদিকে করোনা টেস্ট নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিতর্ক উঠেছে দেশজুড়ে। কিন্তু এই টেস্ট বিতর্ককে কাজে লাগিয়ে এবার আসরে নেমে পড়েছে সাইবার হ্যাকাররা। আর এ ব্যাপারে সাধারণ মানুষকে বারংবার সতর্ক করছে গোয়েন্দা মহল। সাধারণ মানুষ এই মুহূর্তে চরম আতঙ্কিত করোনা নিয়ে। আর তাই এবার সাইবার হ্যাকাররা এই করোনাকে আশ্রয় করে সাধারণ মানুষকে নিঃস্ব করার কাজে নেমে পড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

এমনিতেই দেশজুড়ে চলছে লকডাউন পরিস্থিতি। দেশের অবস্থা যথেষ্ট উদ্বেগজনক। আর তার মধ্যেই এবার সিবিআই এবং দেশের একাধিক ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাঁদের গ্রাহকদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। একইভাবে এবার দেশের অন্যতম ব্যাংক পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকও তাঁদের গ্রাহকদের সতর্ক করলেন সাইবার ক্রাইম নিয়ে। তাঁরা গ্রাহকদের একটি ফেক ইমেইল এর সম্পর্কে সতর্ক করেছেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে পিএনবির তরফ থেকে সমস্ত গ্রাহককে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট এবং মেসেজ পাঠিয়ে সাবধান করা হয়েছে।

এদিন পিএনবি তরফ থেকে একটি টুইট করা হয়। যেখানে বলা হয়, বিভিন্ন শহরে সাইবার হামলার আশঙ্কা রয়েছে এবং ওই টুইটে একটি ফেক ইমেইল দেওয়া হয়। যার নাম ncov2019@gov.in এবং বলা হয় এই ইমেইল থেকে যে কোনরকম মেসেজ এলে যেন কোনোভাবেই ক্লিক না করা হয়। যদি লিংকে ক্লিক করা হয়, তাহলে হ্যাকাররা অতি সহজেই গ্রাহকদের সমস্ত তথ্য হাতিয়ে নেবে এবং ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অতি সহজেই খালি হয়ে যাবে বলে জানানো হয়েছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর ইতিমধ্যেই লক্ষ লক্ষ নাগরিকদের ইমেইল আইডি হ্যাকাররা জোগাড় করে ফেলেছে বলে জানা গেছে। পি এন বির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বর্তমানে দিল্লী, মুম্বাই, হায়দ্রাবাদ, চেন্নাই এবং আহমেদাবাদকে এই মুহূর্তে টার্গেট করে রেখেছে ইন্টারনেট হ্যাকাররা। ইন্টারনেট ব্যবহারে এমনিতেই সর্তকতা জারি করা হয়েছে দেশবাসীর জন্য করোনা আবহকাল থেকেই। দেখা যাচ্ছে, সাধারণ মানুষের তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার জন্য এক ধরনের জালিয়াতচক্র যথেষ্ট সক্রিয় হয়ে উঠেছে বর্তমান পরিস্থিতিতে।

এবার গ্রাহকদের ফাঁদে ফেলতে করোনা টেস্টকে হাতিয়ার করে তুলেছে সাইবার ক্রিমিনালরা বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এ ধরনের ভুয়ো ইমেইল ওপেন করলে অসংখ্য ম্যালওয়ার প্রবেশ করে গ্রাহকদের নিজস্ব জগতে এবং সুচারুভাবে গ্রাহকদের গোপন তথ্য তুলে দেবে হ্যাকারদের হাতে। আপাতত এই জালিয়াত চক্রকে আটকানোর জন্য প্রয়োজন অতিরিক্ত সর্তকতা বলে মনে করছেন সিবিআই থেকে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ভায়া সাইবার বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!