এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ডেরেককে দূত করে দিল্লির কৃষক আন্দোলনের হাত ধরে ঝড় তুলতে আসরে নামলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা

ডেরেককে দূত করে দিল্লির কৃষক আন্দোলনের হাত ধরে ঝড় তুলতে আসরে নামলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –

একসময় সিঙ্গুর আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাম সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পথকে প্রশস্ত করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর বর্তমানে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের পক্ষ থেকে যখন কৃষকদের জন্য নতুন কৃষি আইন করা হয়েছে, ঠিক তখনই তার প্রতিবাদ করে সরব হতে দেখা গেছে তাকে।

ইতিমধ্যেই গোটা দেশজুড়ে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে এই আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন তৈরি হয়েছে কৃষক সমাজের মধ্যে, আর সেই আন্দোলনকে হাতিয়ার করেই এবার ময়দানে নামতে দেখা যাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। আর এবার দিল্লিতে যে কৃষক বিদ্রোহ চলছে, সেই কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে তৃণমূলের প্রতিনিধি হিসেবে সেখানে উপস্থিত থাকতে দেখা গেল ডেরেক ও’ব্রায়েনকে।

যেখানে ডেরেক ও ব্রায়নের ফোনে ফোন করে কৃষকদের সঙ্গে কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেত্রী জানিয়ে দিয়েছেন, কৃষকদের পক্ষ থেকে যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, তার পাশে তার দল সব সময় রয়েছে। অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বক্তব্যের মধ্য দিয়ে নিজেদের কৃষকদরদী ভাবমূর্তি তুলে ধরার চেষ্টা করলেন বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সামনেই 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বাংলায় ক্রমাগত তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে সরব হতে শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তাই এই পরিস্থিতিতে গোটা দেশজুড়ে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আনা কৃষক আইনের বিরুদ্ধে যখন কৃষকরা সরব হচ্ছেন, তখন বিজেপির অস্বস্তি বাড়িয়ে দিতে সেই কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর কথা জানিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই কৃষকদের স্বার্থ সুরক্ষিত করার দাবি জানিয়ে আবার একবার বিজেপি বিরোধী মুখ হিসেবে নিজেকে তুলে ধরার চেষ্টা করলেন বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। পাশাপাশি বিগত বাম সরকারের আমলে কৃষক আন্দোলনের মধ্য দিয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় এসেছিলেন। স্বাভাবিকভাবেই বিজেপির প্রভাব যখন বাড়ছে, তখন গোটা দেশজুড়ে কৃষকদের স্বার্থ বিঘ্নিত হচ্ছে বলে সেই কৃষকদের আন্দোলনের পাশে দাঁড়িয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও একবার বিজেপিকেও চাপে ফেলার চেষ্টা করলেন বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের।

পর্যবেক্ষকদের মতে, যেভাবে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে আনা এই কৃষক আইনের বিরুদ্ধে সরব হতে শুরু করেছে বিরোধীরা, তাতে বিজেপি সরকারের অস্বস্তি ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই কৃষকরা ক্রমাগত আন্দোলনে নেমে এই আইন প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। সেদিক থেকে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো কৃষকদের এই আন্দোলনকে হাতিয়ার করে পাল্টা গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামার পথকে বেছে নিয়েছে।

আর সেই পথকে বেছে নিয়েই এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের দূত হিসেবে ডেরেক ও’ব্রায়েন কৃষকদের আন্দোলনের পাশে দাঁড়ানোর জন্য পাঠিয়ে দিয়ে নিজে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে নিলেন। অর্থাৎ তিনি কৃষক বিদ্রোহকে সম্মান জানিয়ে বুঝিয়ে দিলেন, তিনি এই আন্দোলনে সবসময় থাকবেন। সব মিলিয়ে আগামী 2021 এর পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এইভাবে বিজেপি বিরোধিতা গোটা পরিস্থিতিকে কোথায় নিয়ে গিয়ে দাঁড় করায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!