এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দিল্লী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির চিন্তা বাড়াল তৃণমূল, জোর শোরগোল!

দিল্লী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির চিন্তা বাড়াল তৃণমূল, জোর শোরগোল!



2019 সালের লোকসভা নির্বাচনের সময় কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা বিরোধীদের মহাসমাবেশে অন্যতম তারকা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আম আদমি পার্টির সংস্থাপক তথা দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ঘনিষ্ঠতা সেদিনই দেখেছিল গোটা ভারতবর্ষ। কিন্তু পরবর্তীতে তিন তালাক এবং অন্যান্য কেন্দ্রীয় আইনে বিজেপির পাশে থাকায় অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে বিজেপি ঘনিষ্ঠ হওয়ার অভিযোগ আনতে শুরু করে ভারতবর্ষের একাধিক বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

কিন্তু এতে করে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে আম আদমি পার্টির সম্পর্ক যে বিন্দুমাত্র নষ্ট হয়নি, তার প্রমাণ পাওয়া গেল, সম্প্রতি তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও ব্রায়েনের কথায়। সম্প্রতি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে সাধারণ মানুষকে আম আদমি পার্টির প্রতীক চিহ্নে ভোট দেওয়ার আবেদন জানাতে দেখা যায় ডেরেকবাবুকে।

বর্তমানে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ভারতীয় জনতা পার্টির বিরোধিতায় গোটা ভারতবর্ষের মধ্যে প্রায় এক নম্বরে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তার রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেস। এরকম একটা সময়ে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার নেতা দিল্লিবাসীর কাছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ভোট দেওয়ার প্রস্তাব করলে তা যথেষ্ট প্রাসঙ্গিক হয়ে দাঁড়ায়।

সূত্রের খবর, একটি টুইটের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার সকালে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ তথা রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন লেখেন, “দিল্লির রাজিন্দর নগর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে আম আদমি পার্টির প্রার্থী রাঘব চাড্ডাকে ভোট দিন।” পাশাপাশি তিনি এও বলেন, “অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ভোট দিন।” এমনকি দিল্লির সকল আম আদমি পার্টির প্রার্থীদেরকে ভোট দেওয়ার আবেদন জানান তৃণমূলের ওই রাজ্যসভার সাংসদ। রীতিমতো টুইটারে ভিডিও পোস্ট করে এমন মন্তব্য করেন ডেরেক ও’ব্রায়েন। আম আদমি পার্টি বা অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে ভোট দেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট যুক্তিও দিতে দেখা গেছে তৃণমূলের এই সাংসদকে।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি বলেন, “শিক্ষাক্ষেত্র হোক, বিদ্যুৎ, বা স্বাস্থ্য সরবরাহের বিষয় হোক, আম আদমি পার্টি যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তা পূর্ণ করেছে।” আর এরপরই রাঘব চাড্ডার প্রশংসা করে ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, “রাজিন্দর নগরের বাসিন্দা রাঘববাবু। ও সেখানকারই ছেলে। এখানেই তার বড় হয়ে ওঠা। রাঘব খুবই উজ্জ্বল। আমি দিল্লিতে দেখা অন্যতম উজ্জ্বল মানুষদের মধ্যে রাঘবকে রাখব।” ওয়াকিবহাল মহল মনে করছেন, বিগত দিল্লী বিধানসভা নির্বাচনেও দেখা গিয়েছিল, ভারতীয় জনতা পার্টির স্বপক্ষে হাওয়া থাকা সত্ত্বেও কিছুটা অপ্রত্যাশিতভাবেই 70 টির মধ্যে 67 টি আসনে জয়লাভ করে আপ। আর এবার পরিসংখ্যান থেকে শুরু করে সমীক্ষা, সবকিছুই আম আদমি পার্টির পক্ষে রয়েছে।

তাই বিশ্লেষকদের একাংশের মতে, সম্প্রতি মহারাষ্ট্র থেকে শুরু করে ঝাড়খন্ড পর্যন্ত বিধানসভা নির্বাচনে পরাজিত হওয়া ভারতীয় জনতা পার্টি এমনিতেই যথেষ্ট আশঙ্কায় রয়েছে দিল্লির নির্বাচনকে নিয়ে। তার উপরে আম আদমি পার্টির হয়ে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদের ভোট প্রার্থনা গোদের উপর বিষফোঁড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে বলেই মত একাংশের।

কারণ বিরোধী ভোট ভাগাভাগি হওয়াটা ভারতীয় জনতা পার্টির অন্যতম শক্তি হিসেবে ধরা হয়। এক্ষেত্রে তৃণমূলের মতো রাজনৈতিক দল যদি আম আদমি পার্টিকে সমর্থন করে, তাহলে বিজেপি বিরোধিতায় অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বুনিয়াদ অনেকটাই শক্ত হবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। এখন সমগ্র পরিস্থিতি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আম আদমি পার্টির ভবিষ্যৎকে কতটা সুরক্ষিত করতে পারে, সেদিকেই লক্ষ্য থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!