এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > নজিরবিহীন! তৃণমূল আমলে এসে পে-স্লিপ থেকে অবশেষে উধাও হল DA! চূড়ান্ত ক্ষোভ সর্বস্তরে!

নজিরবিহীন! তৃণমূল আমলে এসে পে-স্লিপ থেকে অবশেষে উধাও হল DA! চূড়ান্ত ক্ষোভ সর্বস্তরে!



দীর্ঘদিন ধরেই এরাজ্যে মহার্ঘভাতা নামক জিনিসটা সত্যিই মহার্ঘ হয়ে গিয়েছিল। যার জেরে সরকারি কর্মচারীদের রোষের মুখে পড়েছিল রাজ্য সরকার। আর এবার ডিএ ছাড়া বেতন পাওয়ায়, পে স্লিপ হাতে নিয়ে রীতিমত বিক্ষোভ দেখালেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। বস্তুত, এতদিন কর্মীরা বেসিক পের সঙ্গে হাউস রেন্ট, মেডিকেল এবং মহার্ঘভাতা যোগ করে তাদের মাসিক বেতন পেতেন। এমনকি গত মাসেও তারা 125% করে মহার্ঘভাতা করেছেন।

তবে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই মহার্ঘ ভাতা দেওয়া হলেও, তা কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের বেতনের থেকে 17 শতাংশ কম বলে অভিযোগ করেছিল সরকারি কর্মচারীদের একাংশ। কিন্তু এবার পে স্লিপ থেকে ডিএর কলামটি বাদ রাখার জন্য, প্রবল ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সরকারি কর্মচারীরা।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

যার জেরে এদিন দুপুরে জলপাইগুড়ি জেলাশাসকের দপ্তরে সামনে সেই পে স্লিপ নিয়ে প্রবল বিক্ষোভ দেখান রাজ্য কো অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা। মূলত পে স্লিপ থেকে ডিএ উঠিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদেই তাদের এই বিক্ষোভ বলে জানিয়েছেন সেই কর্মচারীরা। শুধু তাই নয়, এদিন এই কো অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

এদের এই প্রসঙ্গে সরকারি কর্মী মধু সরকার বলেন, “এই প্রথম আমরা ডিএ ছাড়া মাইনে পেলাম। ডিএ আমাদের অধিকার। সরকার দিতে বাধ্য। তাই আজ আন্দোলনে সামিল হলাম।” এদিকে এই ব্যাপারে রাজ্য সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন ফরওয়ার্ড ব্লকের নরেন চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “সরকার চালায় সরকারি কর্মীরা, আর ডিএর জন্য মামলা করছেন কর্মীরা। এর চেয়ে লজ্জার কিছু নেই। অবিলম্বে সরকারের উচিত, ন্যায্য পাওনা মিটিয়ে দেওয়া।” সব মিলিয়ে এবার বেতনে ডিএ না পাওয়ায় রীতিমত বিক্ষোভে সরকারি কর্মীরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!