এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > শরীর-স্বাস্থ্য > কোভিডের থেকেও বড় সমস্যা হয়ে দেখা দিতে পারে লং কোভিড। জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা

কোভিডের থেকেও বড় সমস্যা হয়ে দেখা দিতে পারে লং কোভিড। জানাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – সম্প্রতি কাউকে যদি প্রশ্ন করা যায় বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা কি? তবে সকলেই একবাক্যে উত্তর দেবেন যে করোনা ভাইরাস। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বিশ্বজুড়ে দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে। যার কমাবার নাম গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে না। বিজ্ঞানীরা দিনরাত এক করে দিয়েও, করোনা রোধের তেমন কার্যকরী কোন উপায় আবিষ্কার করতে পারেন নি এখনো পর্যন্ত। সম্প্রতি বিশ্বজুড়ে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫ কোটি ছাড়িয়ে গেছে। যার মধ্যে মৃত্যু ঘটেছে ১০ লক্ষ ৪৬ হাজার মানুষের।

তবে সম্প্রতি বেশ কিছু বিশেষজ্ঞ জানালেন যে, করোনার থেকেও গুরুতর সমস্যা হয়ে দাঁড়াতে পারে লং কোভিডের সমস্যা। যা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াতে পারে বিশ্বের কাছে। লং কোভিড বলতে বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন যে, কোন ব্যক্তি করোনা থেকে মুক্ত হয়ে গেলেও তার শরীরে অনেক সময় কিছু সমস্যা থেকেই যায়। যে সমস্যাগুলো নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তাকে চলতে হয়। একেই বলা হয় লং কোভিড।

সম্প্রতি লং কোভিড সম্পর্কে বৃটেনের একদল গবেষক ও বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, বহু সংখ্যক মানুষ আছেন যারা করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠবেন ঠিকই। কিন্তু সুস্থ হবার পরেও নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগবেন তারা। বারবার অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন তারা। এমনও হতে পারে, এদের মধ্যে অনেকেই কর্মস্থলে যোগদান করতেও অপারগ হবেন। এ কারণে করোনাতে মৃত্যুর সমস্যা থেকেও বড় সমস্যা হয়ে উঠতে পারে এই লং কোভিডের সমস্যাটি।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

লং কোভিড প্রসঙ্গে কিংস কলেজ লন্ডন এর বেশ কিছু গবেষক জানালেন যে, প্রতি দশজন করোনা আক্রান্তের মধ্যে একজন এই রোগের সমস্যায় জর্জরিত হবেন। আর ৫০ জনের মধ্যে একজনের এই সমস্যা তিন মাস পরও থেকে যাবে। লং কোভিডের সমস্যা সম্পর্কে ব্রিটিশ বিজ্ঞানী টিম স্পেক্টর জানালেন যে, করোনা অনেক সময়ই আক্রান্তের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে দুর্বল করে দেয়। দেহের বেশ কিছু অংশের যথেষ্টভাবে ক্ষয়ক্ষতি চালায়। একারণেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরও অনেক মানুষের শ্বাসকষ্ট, অবিরাম ক্লান্তি , মাথার সমস্যা ইত্যাদি থেকেই যায়।পরবর্তী কয়েক মাস পরেও এই সমস্যাগুলির হাত থেকে রেহাই মেলে না অনেক সময়।

বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা সম্প্রতি করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পৃথিবীজুড়ে যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে এই সংখ্যা শেষ পর্যন্ত যে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে? তার অনুমান করা দুঃসাধ্য। ফলে লং কোভিডের আক্রান্তের সংখ্যাও ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পাবে। বিশাল সংখ্যক মানুষ লং কোভিড আক্রান্ত হলে সকলকে চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া অনেক দেশের পক্ষেই সম্ভবপর হয়ে উঠবে না। একারণেই আতঙ্কিত বিজ্ঞানীরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!