এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > করোনার জেরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত

করোনার জেরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত



ইউরোপের পর করোনার ভরকেন্দ্র এখন আমেরিকা। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। স্বাস্থ্য পরিষেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন। মার্কিন মুলুকে আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই এক লক্ষ ছাড়িয়েছে। তাই করোনার মত মারণ ভাইরাসের হাত থেকে মানুষকে বাঁচাতে লকডাউন এর মেয়াদ বাড়ানো ছাড়া আর কোনো সমাধান নেই বলেই জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমেরিকায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে গিয়ে হয়েছে দেড় লক্ষ।

এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার শর্ত আরো একমাস বাড়িয়ে দিলেন। এর আগে আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, আমেরিকার পরিস্থিতি অনেকটাই ভালো। কিছুদিনের মধ্যেই পরিস্থিতি বেশ স্বাভাবিক হয়ে যাবে। কিন্তু করোনার প্রকোপ তাঁকে বেশ কিছুটা ব্যাকফুটে ঠেলে দিল বলে মনে করা হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট জানান, আগামী পয়লা জুন থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে পারে। তবে সেই সঙ্গে আরেকটি বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ইতিমধ্যেই আমেরিকায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন 24 জন। সে কথা মাথায় রেখে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগামী সপ্তাহে মৃত্যুর হার বাড়তে পারে বলে দাবী করেন। বাস্তব দিক থেকে অনেকেই বলছে, মার্কিন মুলুকে করোনার সূত্রপাতের সময় মার্কিন শাসকরা সক্রিয় ছিলেন না বরং মার্কিন প্রেসিডেন্ট একের পর এক বিতর্ক তৈরি করে গেছেন। যা নিয়ে সব জায়গায় আলোচনাও হয়েছে বিস্তর। রবিবারেও যখন সাংবাদিক বৈঠক হয়, তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সাংবাদিকদের এদিন প্রেসিডেন্ট জানান, তিনি ভেবেছিলেন 12 এপ্রিলের মধ্যেই সব ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু তাঁর উপদেষ্টারা তাঁকে লকডাউন এর মেয়াদ আরও বাড়ানোর কথা বলেন। আপাতত তা বাড়িয়ে করা হয়েছে 30 এপ্রিল। মার্কিন প্রশাসকের পক্ষ থেকে দেশের জনগণকে বলা হয়েছে, একসাথে বহু লোকের জমায়েত যেন না হয়। কোন শারীরিক সমস্যার সৃষ্টি হলে বাড়িতে থাকাই প্রয়োজন এবং পেশাদার কর্মীরা যেন বাড়িতে থেকেই কাজ করেন।

এছাড়াও অতি প্রয়োজন ছাড়া যেন কেউ বাড়ির বাইরে না বের হন। সূত্রের খবর, গত দু’দিনে মার্কিন মুলুকে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। আপাতত এই মৃত্যু-মিছিল থামাতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের হাতে লকডাউন এর মেয়াদ বাড়ানো ছাড়া আর কোনো অস্ত্র নেই বলেই মনে করা হচ্ছে। শুধু মার্কিন মুলুকেই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনা সংক্রমণ মহামারী রূপ ধারণ করতে চলেছে। এই অবস্থায় সারাবিশ্বের প্রার্থনা এখন একটাই- করোনা নিপাত যাক।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!