এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ছারখার দেশ, আসছে আরও ভয়ঙ্কর তৃতীয় ঢেউ! দেশকে চাঙ্গা রাখতে আসরে সঙ্ঘ

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ছারখার দেশ, আসছে আরও ভয়ঙ্কর তৃতীয় ঢেউ! দেশকে চাঙ্গা রাখতে আসরে সঙ্ঘ



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –প্রথমবার করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ রুপ দেখে সকলেই সতর্ক হয়ে গিয়েছিলেন। যার পরে দেশজুড়ে শুরু হয়েছিল টিকাকরন প্রক্রিয়া। কিন্তু টিকাকরণ শুরু হতে না হতেই আবার করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে গোটা ভারতবর্ষে। অনেকে বলছেন, প্রথমবার এই ভয়াবহতা যতটা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছিল, তার থেকে অনেক বেশি ভয়াবহ হিসেবে সামনে এসেছে দ্বিতীয় দফার এই ভাইরাস। ইতিমধ্যেই প্রচুর মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। চলছে মৃত্যু-মিছিল। শ্মশানের সামনে সারিবদ্ধ হয়ে পড়ে রয়েছে একের পর এক মৃতদেহ।

আর এই পরিস্থিতিতে এবার করোনা ভাইরাস যখন বাড়ছে, ঠিক তখনই সচেতনতার জন্য ময়দানে নেমে পড়লেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের প্রধান মোহন ভাগবত। বলা বাহুল্য, দেশ যখন বিপদের সম্মুখীন হয়েছে, তখন বিভিন্ন সমাজ সেবামূলক কাজে এগিয়ে আসতে দেখা গেছে এই প্রতিষ্ঠানকে‌। করোনা ভাইরাস যখন প্রথমবার ভারতবর্ষে প্রবেশ করেছিল, তখন মানুষের পাশে দাঁড়াতে দেখা গিয়েছিল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘকে। আর দ্বিতীয় দফায় যখন এই ভাইরাস আরও বাড়ছে, তখনও একই ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য উদ্যত হলেন মোহন ভাগবত।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের এই সময়কালে মানুষের মধ্যে আত্মবিশ্বাস অনেকটাই তলানিতে ঠেকেছে। তাই ভয়াবহ রোগের সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে মানুষ যাতে কোনোভাবেই হাঁপিয়ে না পারেন এবং হতাশ না হন, তার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। ইতিমধ্যেই “পজিটিভিটি আনলিমিটেড” নামে একটি ধারাবাহিক বক্তৃতা সভা চালু করেছে তারা। আর সেই সভাতেই অংশগ্রহণ করে দ্বিতীয় ঢেউ যেভাবে বাড়ছে, তাতে সকলকে সামনে দাঁড়িয়ে থেকে লড়াই করার আহ্বান জানান রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের প্রধান মোহন ভাগবত।

পাশাপাশি ভবিষ্যতের জন্য সচেতনতা দিতেও দেখা যায় তাকে। তিনি বলেন, “পরাজয়ের সম্ভাবনা নিয়ে আমরা আগ্রহী নই। নৈরাশ্য বা পরাজয় বলে কিছুই নেই। ভারতকে আরও মহামারীকে জয় করতে হবে। জীবন-মৃত্যুর এই চক্র চলতেই থাকবে। এতে আমরা ভয় পাই না। এটা হল সেই পরিস্থিতি, যা আমাদের ভবিষ্যতের জন্য প্রশিক্ষিত করে তোলে। সাফল্য চূড়ান্ত গন্তব্য নয়। আবার ব্যর্থতাতেই সব শেষ নয়। সাহস জারি রাখাটাই আসল কথা।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দ্বিতীয় ঢেউ প্রথম ঢেউয়ের থেকে অনেকটাই মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। তবে এখন থেকেই যদি পরিস্থিতি সামাল দেওয়া না যায়, তাহলে তৃতীয় ঢেউয়ের ভয়াবহতার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে ভারতবর্ষকে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর এই পরিস্থিতিতে সকলকে চাঙ্গা রাখতে মোহন ভাগবতের এই বার্তা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।

অর্থাৎ হতাশাজনিত মুহূর্তে যাতে কেউ কোনোভাবেই ভেঙে না পড়েন, তার জন্য বার্তা দিতে দেখা গেল তাকে। প্রকৃতির নিয়মে জীবন-মৃত্যু যে চলতেই থাকবে, তা বলে সামনের দিনের জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি নেওয়ার ইঙ্গিত শোনা গেল তার গলায়। অর্থাৎ ধীরে ধীরে গৃহবন্দির মুখে যাওয়া ভারতবর্ষের মানুষ যাতে মনোবল ভেঙ্গে না পড়েন, তার জন্য মোহন ভাগবতের এই উক্তি প্রাথমিক টনিক হিসেবে অনেকটাই কাজে দেবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!