এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি উড়িয়ে নির্বাচনী প্রচার করে বড়সড় বিপাকে রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী!

করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি উড়িয়ে নির্বাচনী প্রচার করে বড়সড় বিপাকে রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ এখনো আশঙ্কাজনক পরিস্থিতিতে রয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। চিকিৎসক এবং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, কড়াভাবে করোনা বিধি মেনে চলতে হবে। সরকারের পক্ষ থেকেও করোনা বিধিনিষেধ মেনে চলার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু তার মধ্যেই সংক্রমণ রোখার বদলে করোনার নিয়ম ভাঙার অভিযোগ উঠল রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দিকে। আর তাই নিয়েই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে জোর শোরগোল।

সম্প্রতি আসামে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই দেখা গেল ঠিক এরকমই একটি ঘটনা। আসামে বোরোল্যান্ড টেরিটোরিয়াল কাউন্সিল ইলেকশন বা বিটিসি-র নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল কয়েকদিনের মধ্যেই। কিন্তু করোনার জেরে সেই নির্বাচন আপাতত স্থগিত। কিন্তু রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী এদিন নিয়ম ভেঙে এক বিশাল মিছিল বার করলেন। যার জেরে দেখা যাচ্ছে সেই মিছিলে কেউই কোনো করোনা সংক্রান্ত দূরত্ব বিধি মানছেন না।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য। অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী পীযূষ হাজারিকার দিকে উঠেছে অভিযোগের আঙুল। ইতিমধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে করোনা বিধি ভাঙার মামলা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে এই ঘটনা প্রসঙ্গে গুয়াহাটি পুলিশের অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনার (সেন্ট্রাল) শর্মিষ্ঠা বড়ুয়া জানিয়েছেন, এই মামলা বক্সার তামুলপুর পুলিশ স্টেশনে রুজু হয়েছে। অন্যদিকে বক্সা জেলার এসপি হিরণ্য বর্মন জানিয়েছেন, তাঁর হাতে এখনো পর্যন্ত মামলা সংক্রান্ত কোনো নথি আসেনি।

যতক্ষণ না সেগুলো হাতে আসবে, ততক্ষণ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া যাবে না মন্ত্রীর বিরুদ্ধে। অন্যদিকে করোনা পরিস্থিতিতে নিয়ম ভাঙা নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন আসামের বিরোধীরা। বিশেষজ্ঞদের মতে, দেশজুড়ে করোনা পরিস্থিতি যখন ক্রমশ আশঙ্কাজনক হয়ে উঠেছে, সে সময় সরকারি প্রতিনিধির এ ধরনের নিয়ম ভাঙা আচরণ অবশ্যই প্রশ্নের মুখে পড়বে। আপাতত আইন অনুযায়ী নিয়ম ভাঙার ফলে সরকারি প্রতিনিধিকে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে কিনা, সেদিকেই থাকবে নজর সবার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!