এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থলেই কি এবার মিলবে ভাইরাস বিনাশের উপায়? জানুন বিস্তারিত

করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থলেই কি এবার মিলবে ভাইরাস বিনাশের উপায়? জানুন বিস্তারিত



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে ট্রায়াল চলছে বিভিন্ন দেশে। সেইসঙ্গে ভারতের কোভিশিল্ডের ট্রায়ালে আপাতত আশার আলো দেখছে দেশবাসী। সেইসঙ্গে এটি বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন হবে বলেও আশা করা হয়েছিল বিভিন্ন ক্ষেত্রে। সম্প্রতি সেই নিয়ে সামনে এসেছে আরও বড় খবর।

তবে বলে রাখা দরকার, করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কারে কোভিশিল্ডই হবে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন, এটাই মনে করছেন গবেষকরা। তবে সেটি কোভিশিল্ড নয়। বস্তুত, এই সুসংবাদ পাওয়া গেছে চীন থেকে। হ্যা সেই চীন, যেখান থেকেই নাকি করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি হয়েছে।

যদিও এখনো পর্যন্ত সরকারিভাবে না হলেও চীনের একটি জার্নালে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, একটি নতুন করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন মানুষের দেহে অ্যান্টিবডি তৈরিতে বেশ ভালো রকম কাজ করছে বলে জানা গেছে। বস্তুত চীনে এপ্রিল থেকে জুলাই মাসেই ভলেন্টিয়ারদের ওপর নাকি চালানো হয় ভ্যাকসিনের ট্রায়াল।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

সেইসঙ্গে চীনের গবেষণা সংস্থা “বেজিং ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিক্যাল প্রোডাক্ট” সহ বেশ কয়েকটি বড় প্রতিষ্ঠান এই গবেষণায় অংশ নিয়েছে বলেও জানা গেছে। চীনে জার্নালে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী ৪২ জন স্বেচ্ছাসেবী এই ট্রায়ালে অংশ নিয়েছিলেন।

ভ্যাকসিনটি তাদের প্রত্যেকের শরীরেই অ্যান্টিবডি তৈরির ক্ষেত্রে ভালো প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন বলে জানা যায়। সেইসঙ্গে এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা না যাওয়ায় এই ভ্যাকসিন নিয়ে আশাবাদী রয়েছে চিকিৎসকেরা। তবে ৪২ জনের কথা উল্লেখ করা হলেও ২৮ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে প্রায় ৬০০ জনের বেশি সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক এই পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন বলে জানা গেছে।

যদিও সরকারি তরফে করোনা ভাইরাসের রোগীকে বাঁচানোর ক্ষেত্রে এই ভ্যাকসিন কতটা কার্যকরী হবে তা বলা না গেলেও, গবেষকদের দাবি প্রাথমিক পর্যায়ে যে তথ্যগুলো পাওয়া গেছে, তা তৃতীয় পর্যায়েও যে কার্যকরী থাকবে সে কথাই আশা করা হচ্ছে। তবে শুধু এটি না, চীন আরো চারটি ভ্যাকসিন নিয়ে আশাবাদী রয়েছে। যেগুলির আপাতত ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ পর্যায় আছে বলেই জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!