এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > করোনা তো চলে গিয়েছে! জল্পনা বাড়িয়ে একি বললেন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ? সরগরম রাজ্য রাজনীতি!

করোনা তো চলে গিয়েছে! জল্পনা বাড়িয়ে একি বললেন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ? সরগরম রাজ্য রাজনীতি!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- লকডাউন সম্পূর্ণ না উঠলেও দেশে আনলক প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের এখনো চারটি জেলায় সেভাবে করোনা নিয়ন্ত্রন করা যায়নি। তাই এই কনটেইনমেন্ট জোনগুলোতে এখনো পর্যন্ত চলছে সরকারের কড়া নির্দেশিকা। এরইমধ্যে করোনার সংক্রমণ রুখতে মাঝে মাঝেই আনলক প্রক্রিয়ার মধ্যেও সম্পূর্ণ লকডাউনের নিয়ম পালন করা হচ্ছে। যদিও বিরোধীদের দাবি এতে কোনোভাবেই কোনো লাভ হবে না, তবুও বর্তমানে আমাদের রাজ্যে এই প্রথার অন্যথা হতে দেখা যাচ্ছে না।

সম্প্রতি তৃণমূল দলের নেত্রীকে লকডাউন নিয়ে অনেকবারই নানা বিতর্কিত মন্তব্যে বিদ্ধ করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সেই সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়েছেন তিনি নিজেও। তবে এবারে তার কাছে শোনা গেল তৃণমূল সরকার নিয়ে আর এক নতুন বিতর্কিত মন্তব্য। বৃহস্পতিবার হুগলির ধনেখালির এক জনসভায় যোগ দিতে গিয়ে তিনি বলেন যে, করোনা চলে গিয়েছে কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখনও লকডাউন করছেন। তবে তাঁর মতে এর উদ্দেশ্য হল বিজেপি যাতে কোনও মিটিং বা মিছিল করতে না পারে। কিন্তু এভাবে তাদের যে আটকানো যাবে না, এই হুঁশিয়ারিও তিনি দিয়েছেন। তবে স্বভাবতই তাঁর এই মন্তব্য ঘিরে ফের রাজনৈতিক মহল উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

[content_block id=39107

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২১শের ভোট এখন সব রাজনৈতিক দলের লক্ষ্য। তাই সেই নিয়ে প্রচার চালাতে ব্যস্ত সবাই। এরই মধ্যে আগমন হয়েছে করোনার। ফলে অবস্থা খুব একটা ভালো নয়, কোনো দলেরই। তবে এরই মধ্যে করোনার দোহাই দিয়েই নাকি মমতা সরকার অন্যান্য দলকে প্রচার থেকে বিরত রাখতে চাইছে। তাই বিজেপি সভাপতির কথার করোনা চলে গেলেও লকডাউন চলছে বাংলায়। তবে সেটা নাকি কিছুই না, কেবল সরকারের নতুন নীতি, বিরোধীদের আটকাতে।

এখানে বলে রাখা দরকার, শুধু এটাই নয়, এরই মধ্যে তিনি আগেও দাবি করেছিলেন গেরুয়া শিবিরকে রুখতেই নাকি রাম মন্দির ভূমি পুজোর দিন রাজ্যে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাজ্য প্রশাসন। তবে সম্প্রতি সেই সুরেই সুর মিলিয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। রাম মন্দিরের ভূমিপুজোর দিন লকডাউন করে মুখ্যমন্ত্রী আদতে তাঁর হিন্দুবিরোধী মনোভাবেরই পরিচয় দিয়েছেন বলেই দাবি জানিয়েছিলেন তিনি। তবে এবার আবারও রাজ্যের বিজেপি সভাপতির এহেন মন্তব্যে শাসকদলের তরফ থেকে কি জবাব আসে সেটাই দেখার অপেক্ষা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!