এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > করোনা নিয়ে ৩২ দেশের গবেষণায় উঠে এল ভয়ঙ্কর তথ্য! সংক্ৰমণ ছড়াতে পারে আরও সাঙ্ঘাতিক ভাবে?

করোনা নিয়ে ৩২ দেশের গবেষণায় উঠে এল ভয়ঙ্কর তথ্য! সংক্ৰমণ ছড়াতে পারে আরও সাঙ্ঘাতিক ভাবে?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গত কয়েক মাস ধরে বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রাণঘাতী এই করোনা ভাইরাস এর হাত থেকে বাঁচার জন্য পরিত্রাহি চেষ্টা চালাচ্ছে মানবসমাজ। কিন্তু ইতিমধ্যেই করোনা এত তীব্র আকারে ছড়িয়েছে সারা বিশ্বজুড়ে, যার কারণে কয়েক লক্ষ মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। যত দিন যাচ্ছে, করোনার আতঙ্ক ততো তীব্র আকার ধারণ করছে। সাধারণ মানুষ এই মুহূর্তে করোনার আতঙ্কের রীতিমতো দিশাহারা বলে মনে করা হচ্ছে।

অন্যদিকে এখনো পর্যন্ত করোনার কোন প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি। তবে বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতিকে টেক্কা দিতে দিনরাত এক করে চলছে মারণ ভাইরাসকে শেষ করার প্রক্রিয়া। এর সাথেই করোনা গবেষণা করতে গিয়ে এমন এমন তথ্য উঠে আসছে বিজ্ঞানীদের সমীক্ষার দ্বারা, যা রীতিমত আতঙ্ক তৈরি করছে সাধারণের জীবনে। সম্প্রতি এরকমই আরেকটি তথ্য উঠে এসেছে গবেষণায়। এতদিন পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা নিয়ে দাবি জানিয়ে আসছিল বাতাসে করোনার জীবাণু ভেসে থাকতে পারেনা।

কিন্তু অন্তত 32 টি দেশের 239 জন গবেষক সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে চিঠি লিখে দাবি জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাস অন্তত বাতাসে 0.5 মাইক্রনের কম আয়তনের ভাইরাস বাতাসে অন্তত ছয় ফুট পর্যন্ত ভেসে বেড়াতে পারে। আর তাই বাতাস থেকে করোনার সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনাও অতি প্রবল। সম্প্রতি করোনার গবেষকরা জানিয়েছেন, যে কোন স্কুল, রেস্টুরেন্ট, ক্যাসিনো বা মার্কেট এর মতন বদ্ধ জায়গাতে করোনা ছড়ায় সব থেকে বেশি।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অবশ্য অনেক আগে থেকেই বলা হচ্ছে, যদি কেউ করোনা আক্রান্ত হন তাহলে তাঁর হাঁচি বা কাশি থেকে সুস্থ ব্যক্তি সংক্রামিত হতে পারেন। অন্যদিকে বিজ্ঞানীরা এই পরিস্থিতি থেকে বাঁচার জন্য ত্রিস্তরীয় মাস্ক ব্যবহার করার কথা বলেছেন। বলা হচ্ছে, মাস্কের ভেতরের দিকে যেন অবশ্যই কাপড়ের আস্তরণ থাকে। এর ফলে ভাইরাস অতি সহজে সুস্থ ব্যক্তিকে আক্রান্ত করতে পারবে না। এছাড়া গবেষক ও চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, স্কুল, রেস্টুরেন্ট বা বদ্ধ অফিস ঘরের জানলা সব সময় খুলে রাখতে হবে, যাতে সহজেই হাওয়া বাতাস খেলতে পারে।

দরকার হলে অতিবেগুনি রশ্মির সাহায্যে করোনা ভাইরাসকে দমন করা যেতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। বিশ্বজুড়ে এমনিতেই করোনা পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। তার পরে বিজ্ঞানীদের এই নতুন তথ্য সামনে আসার ফলে আশঙ্কা ও আতঙ্ক ততোধিক হারে বেড়ে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, যতদিন না প্রতিষেধক আবিষ্কার হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত মানব সমাজের সাথে ভাইরাসের এই লড়াই হয়ে উঠবে মানবজাতির টিকে থাকার লড়াই। এই মুহূর্তে বিশ্ববাসীর একটাই চিন্তা কবে মিলবে এই মারণ ভাইরাসের হাত থেকে চিরতরে মুক্তি?

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!