এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > পথ দেখাচ্ছে ভারত! কোলাকুলি বা গলাগলি নয়! করোনা আবহে গোটা বিশ্বই ভরসা রাখছে ভারতের নমস্কারে

পথ দেখাচ্ছে ভারত! কোলাকুলি বা গলাগলি নয়! করোনা আবহে গোটা বিশ্বই ভরসা রাখছে ভারতের নমস্কারে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – করোনা পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাটা বাধ্যতামূলক। তাই সৌজন্যতা দেখাতে হাত মেলানো এখন নৈব নৈব চ। তাহলে উপায়? আমাদের ভারতীয় সংস্কৃতি। হাজার হাজার বছর ধরে যে সংস্কৃতি আমাদের বিশ্বের দরবারে আলাদা স্থান করে দিয়েছে, সেই সংস্কৃতিই এখন আপন করে নিচ্ছে গোটা বিশ্ব।

সম্প্রতি আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প আর প্রিন্স চার্লসকে একে অপরের সঙ্গে নমস্কার করে স্বাগত জানতে দেখা গেছে। সেই ছবি কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। পরে ট্রাম্পকে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে জানা যায় যে, তিনি সম্প্রতি ভারত থেকে এসেছেন। আর সেখানকার মানুষ একে অপরকে স্বাগত জানানোর জন্য নমস্কার করে। তাই তিনিও সেটাই শিখেছেন।

এখন সেই পথেই হাঁটছেন ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ এবং জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল। সম্প্রতি ভারতীয় সংস্কৃতি অনুযায়ী একে অপরকে শুভেচ্ছা জানানোর একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের এই দুই নেতা বৃহস্পতিবার যখন একে অপরের সাথে সাক্ষাৎ করেন, তখন ওনারা হাত মেলানোর বদলে একে অপরকে নমস্কার জানিয়ে স্বাগত জানান। আর এরপরই সোশাল মিডিয়ায় শুরু হয় নতুন আলোচনা। তাহলে কি এবার ট্রাম্পের দেখানো পথেই হাঁটছেন বাকিরা???


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এর আগেও ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতি ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ প্যারিসে স্পেনের রাজাকে স্বাগত জানানোর সময় হ্যান্ডশেক করার বদলে নমস্কার জানিয়েছিলেন। সেই সময় দিল্লীতে থাকা ফ্রান্সের রাজদূত ট্যুইট করেছিলেন যে রাষ্ট্রপতি ম্যাক্রঁ নিজের অতিথিদের স্বাগত জানতে নমস্কার করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ২০১৮ সালে ওনার ভারত সফরের সময় উনি এই ভারতীয় সংস্কৃতি সম্পর্কে জানতে পেরেছিলেন। শুধু এরাই নন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানইয়াহুও নিজের দেশে এই ভারতীয় সংস্কৃতি আপন করে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

সাধারণত পশ্চিমের মানুষেরা নিজেদের সৌজন্যতা বিনিময়ের জন্য হ্যান্ড সেক করতেই অভ্যস্ত। শুধু তাই নয়, আমরা ভারতীয়রাও কাজের জায়গা তথা কর্পোরেট দুনিয়ায় এই প্রথাকেই মেনে নিয়েছি। ভুলে গেছি নিজেদের সংস্কৃতি। তবে করোনা ভাইরাস আবার আমাদের সেই হাজার বছর পুরোনো সংস্কৃতিকে মনে করিয়ে দিয়েছে। শুধু তাই নয় সারা বিশ্বের কাছে প্রমাণ করে দিয়েছে তা বৈজ্ঞানিকভাবে কতটা যথার্থ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!