এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > করোনা মিটতে না মিটতেই আবার নতুন সংক্রামক রোগ- চাঞ্চল্য বিশ্বজুড়ে

করোনা মিটতে না মিটতেই আবার নতুন সংক্রামক রোগ- চাঞ্চল্য বিশ্বজুড়ে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – এতদিন পর্যন্ত চীনকে করোনার উৎপত্তিস্থল বলেই জানা যাচ্ছিল। করোনার কারণে চীনের লাখ লাখ মানুষ ইতিমধ্যে প্রাণ হারিয়েছে সে কথা সবার জানা। অন্যদিকে তথ্য চাপার কারণে ইতিমধ্যেই আন্তর্জাতিক মহলে চীন রীতিমতো ব্রাত্য। এই অবস্থায় চীন সরকারের চিন্তা বাড়িয়ে আরও এক সংক্রামক ভাইরাসের আমদানি হল চিনে। সারা বিশ্ব জুড়ে বিভিন্ন দেশ এই মুহূর্তে চীন থেকে সৃষ্ট হওয়া করোনা সংক্রমণের কারণে রীতিমত বিপর্যয়ের মোকাবিলা করছে। তার মধ্যেই নতুন করে মহামারী রোগের উৎপত্তি চীনে আর সেই নিয়েই ছড়াচ্ছে আতঙ্ক।

সূত্রের খবর, চীনের এই নতুন ভাইরাসের উৎপত্তি এঁটেল পোকা থেকে। ইতিমধ্যেই এই সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হয়ে 5 জনের মৃত্যু হয়েছে চীনে এবং 23 জন গুরুতর অসুস্থ বলে জানা গেছে। আপাতত নতুন এই ভাইরাস বাহিত অসুখটির নাম রাখা হয়েছে, সিভিয়ার ফিভার ইউদ থ্রম্বোসাইটোপেনিয়া সিনড্রোম বা এসএফটিএস। চীনের সরকারি মুখপাত্র গ্লোবাল টাইমস সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্ব চীনের আনহুই প্রদেশের লুয়ান কাউন্টির স্থানীয় স্বাস্থ্য কমিশন এই সংক্রামক রোগের ব্যাপারটি স্বীকার করে নিয়েছেন।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, এই রোগটির সাথে সামঞ্জস্য অনুযায়ী ডেঙ্গুর নাম উঠে আসছে। ডেঙ্গুর মতন এই রোগেরও লক্ষণ হল, প্রবল জ্বর, থ্রম্বোসাইটোপেনিয়া, বমি বমি ভাব এবং বারবার বমি হওয়া। তবে গ্রামাঞ্চলে এই রোগের প্রাদুর্ভাব বেশী বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে, গ্লোবাল টাইমস এই রোগকে নতুন বলে চালালেও বিভিন্ন সূত্রে জানা যাচ্ছে, চীনে 2011সাল থেকে এই রোগের দেখা মিলেছে। গত বছর নেচার পত্রিকায় প্রকাশিত গবেষণা সূত্রে জানা গিয়েছে, 2011 সাল থেকে 2016 সালের মধ্যে চীনে মোট 5307 টি এসএফটিএস এর কেস নথিভুক্ত হয়েছে।

2011 সালে যেখানে চীনের 98 টি কাউন্টিতে এই সংক্রামক রোগের প্রকাশ পেয়েছিল, 2016 সালে সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 167। অন্যদিকে বিশেষজ্ঞদের মতে, চীন যেভাবে আন্তর্জাতিক মহলে তথ্য গোপন করার প্রবণতা রাখে তাতে নতুন এই ভাইরাসে আক্রান্ত এখনো পর্যন্ত অনেক বেশি বলে মনে করা হচ্ছে। তবে চীনে নতুন এই সংক্রামক রোগের উৎপত্তি হওয়ার খবরে বিশ্বজুড়ে যে সাবধানতা প্রবলভাবে বৃদ্ধি পাবে, সে কথা বলাই বাহুল্য।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!